৪৬৬ কোটি টাকা এমপির বাড়ি থেকে উদ্ধার !

৪৬৬ কোটি টাকা এমপির বাড়ি থেকে উদ্ধার  !

এমপির বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে গোয়েন্দা বিভাগ। আর তাতে মিলেছে বিপুল অর্থ। যা গুনতে সময় লেগে গেছে পাঁচ দিন। সেখানে মিলেছে বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৪৪৪ কোটি ৩৪ লাখ টাকা। সোমবার (১১ ডিসেম্বর) অবিশ্বাস্য এমন এক ঘটনার তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতীয় কংগ্রেসের এক এমপির বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তারা। যেখানে পাওয়া অর্থ গুনতে যোগ দিয়েছেন ৫০ জন ব্যাংক কর্মকর্তা। নেওয়া হয়েছে ৪০ টি গণনার মেশিন। এরপর টানা পাঁচ দিন ধরে গণণা করা হয়েছে। সেখানে মিলেছে ৩৫৩ দশমিক ৫ কোটি রুপি। যা টাকার অংকে প্রায় ৪৬৬ কোটি ৩৪ লাখ ৭৬ হাজার টাকার সমান। ভারতের ইতিহাসের আগের সব রেকর্ড ভেঙেছে এ অর্থ। এটি এখন সবচেয়ে বড় নগদ অর্থ উদ্ধার অভিযান।

অভিযান পরিচালনা করা ওই ব্যক্তির নাম ধীরজ সাহু। তিনি ভারতের কংগ্রেসের রাজ্যসভার সংসদ সদস্য। তার ঝাড়খণ্ড ও ওড়িশার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এ অর্থ জব্দ পাওয়া গেছে। আয়কর বিভাগের কর্মকর্তরা এসব অর্থ জব্দ করেছেন।

উড়িশার বোলাঙ্গির এসবিআই শাখার আঞ্চলিক কর্মকর্তা ভগত বেহেরা বলেন, এখন পর্যন্ত ১৭৬টি রুপির বস্তা উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে ৪০টি রুপির বস্তা গোনার কাজ শেষ হয়েছে। বিপুল এ অর্থ গণনার জন্য ব্যাংক চত্বরে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উদ্ধারকৃত অর্থের পরিমাণ ২২৩ কোটি রুপি। এসব অর্থ গণনার জন্য আয়কর বিভাগ ৩৫টির বেশি ক্যাশ কাউন্টিং মেশিন কাজে লাগিয়েছে।

আয়কর বিভাগ জানিয়েছে, উদ্ধার করা এসব অর্থের মধ্যে কংগ্রেস সংসদ সদস্যের মালিকানাধীন সংস্থা ‘বৌধ ডিসটিলারি প্রাইভেট লিমিটেডের’ অফিসের একটি আলমারি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া বাকি অর্থ উড়িশার সম্বলপুর, সুন্দরগড় ও ঝাড়খণ্ডের বোকারো, রাঁচি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

আয়কর বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ওড়িশায় একটি মদ প্রস্তুতকারক কোম্পানির ও সংশ্লিষ্ট ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সম্পত্তির সূত্র ধরে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। ঝাড়খণ্ডের বোকারো ও রাঁচিতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এ ছাড়া ওড়িষ্যার সম্বলপুর ও সুন্দরগড়েও তল্লাশি চলছে। ভারতীয় এ সংসদ সদস্যের দুর্নীতির সঙ্গে সরাসরি যুক্ত থাকার অভিযোগ রয়েছে।