৪র্থ নেপাল কালচারাল ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভালে “ডাম্ব”

৪র্থ নেপাল কালচারাল ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভালে বেস্ট ইন্টারন্যাশনাল চিলড্রেন ফিল্ম ক্যাটাগরিতে অফিসিয়াল সিলেকশন হয়েছে। ৩৪টি দেশের ৭২টি ফিল্ম প্রদর্শিত হবে এবং ১৫ টি চলচ্চিত্রকে পুরস্কৃত করা হবে।
দীর্ঘদিন ধরেই বাংলাদেশের চলচ্চিত্রকে বিকেন্দ্রীকরন ও উত্তরবঙ্গে সুস্থ্য ধারার চলচ্চিত্র শিল্প গড়ে তোলা এবং এই শিল্প বিকশিত করার লক্ষে আন্দোলন চলছে। আন্দোলনরত এ তরুনদের একজন সহযোদ্ধা, উদীয়মান তরুন, স্বাধীন চলচ্চিত্র নির্মাতা “শাহারিয়ার চয়ন”। তিনি উত্তরবঙ্গ তথা রাজশাহীর চলচ্চিত্র শিল্পকে সমৃদ্ধ করতে ধারাবাহিক ভাবে একের পর এক চলচ্চিত্র নির্মান করে চলেছেন। সহানুভূতি, ফানুস, গন্তব্যহীন, বোধ, বুট পালিশ এসব চলচ্চিত্রের পর এবার তিনি নির্মান করেছেন শিশুতোষ চলচ্চিত্র “ডাম্ব”। এই চলচ্চিত্রটি ইতিমধ্যেই বেশ কিছু ফেস্টিভালে মনোনিত হয়েছে। “৪র্থ মাল্টি কালচারাল ফিল্ম ফেস্টিভাল, টরেন্টো, কানাডা”, “হামিংবার্ড ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল, ইন্ডিয়া”, “২০তম ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল, বাংলাদেশ”, “গোয়াহাটি ফিল্ম ফেস্টিভাল, ইন্ডিয়া” “৫ম সাউথ এশিয়ান শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভাল, ইন্ডিয়া”, ডাম্ব চলচ্চিত্রটি মনোনিত হয়েছে। চলচ্চিত্রের গল্প, চিত্রনাট্য, সিনেমাটোগ্রাফি ও পরিচালনা করেছেন শাহারিয়ার চয়ন। ড্রিম মেকিং প্রোডাকশনের ব্যানারে নির্মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাবেরা ইয়াসমিন সিমা, শান্ত, আতিকুর রহমান লাকি, নরুল আমিন মধু। ১২ বছরের শিশু শান্ত। শান্ত গ্রামে ভালো রেজাল্ট করায় গ্রাম থেকে বাবা মেয়েকে শহরের চাচার বাসায় নিয়ে আসে। শহরের এসে চাচার যৌন নির্যাতনের শিকার হয় কিন্তু চাচি সব বুঝতে পেরেও স্বামীর জন্য কিছু করতে পারেনা। অবশেষে চাচি শান্তর বাবাকে শহরে আসতে বলে এবং বাবার সাথে গ্রামে পাঠিয়ে দেয়।
রাজশাহীর বিভিন্ন মনোরম স্খানে চলচ্চিত্রটির চিত্রায়ন করা হয়েছে।

Related Posts