হিলিতে আমদানি কমেছে পেঁয়াজের

হিলিতে  আমদানি কমেছে পেঁয়াজের

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি করা হচ্ছে ভারতীয় পেঁয়াজ। বুধবার (২২ ডিসেম্বর) বন্দর দিয়ে সাত ট্রাকে ১৮৮ টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে, যা গত কয়েকদিনের চেয়ে অনেক কম।

ব্যবসায়ী ও আড়তদাররা জানান, দেশী পেঁয়াজের আমদানি বাড়ায় বাজারে দাম কমেছে। আড়তগুলোতে ২২-২৩ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে ভারতীয় পেঁয়াজ। চারদিন আগে যা বিক্রি হতো ২৭ টাকায়। সরেজমিনে বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজের পাশাপাশি দেশীয় জাতের পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। পাইকারি বাজারে ২২-২৩ টাকা বিক্রি হলেও খুচরা বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজ প্রকারভেদে ২৪-২৫ টাকা। আরমান আলী নামের এক ক্রেতা বলেন, ‘পেঁয়াজের দাম বেশ কয়েকদিন ধরে মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রয়েছে। এতে স্বস্তি ফিরে এসেছে। বছরজুড়ে দাম হাতের নাগালে থাকলে ভালো হয়।’ খুচরা পেঁয়াজ বিক্রেতা মিঠু বলেন, ‘দিন দিন হিলিতে ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানি কমছে। দেশীয় পেঁয়াজের দাম এখন ৪০ টাকা কেজিতে বিক্রয় হচ্ছে। পাতা পেঁয়াজ ২৭ ও ভারতীয় পেঁয়াজ ২৪-২৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।’ পেঁয়াজ আমদানিকারক বাবু হোসেন বলেন, ‘হিলি বন্দর দিয়ে গত সপ্তাহের তুলনায় ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানি কমেছে। তবে দেশের বিভিন্ন এলাকা দিয়ে বার্মার পেঁয়াজ আসায় দাম কমে গেছে।’ হিলি বন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন প্রতাব মল্লিক জানান, বন্দর দিয়ে ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানি কমেছে। পর্যাপ্ত দেশীয় পেঁয়াজ থাকায় দামও কমেছে।

অনলাইন ডেস্ক