সুশান্তদের সবাই ছুঁয়ে দেখতে চায়, কিন্তু মন ছুঁয়ে যায় না: সিয়াম আহমেদ

বলিউডের তরুণ তারকা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর ২ বছর পূর্ণ হয়ে গেলো আজ (১৪ জুন)। ২০২০ সালের এই দিনে মুম্বাইয়ের নিজ ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার করা হয় সুশান্তের মরদেহ।

সুশান্তের মৃত্যুবার্ষিকীতে তাকে স্মরণ করছেন পরিবার, বন্ধু-স্বজন-শুভাকাঙক্ষীসহ অনেকে। ঢাকাই সিনেমার এই সময়ের জনপ্রিয় নায়ক সিয়াম আহমেদও স্মরণ করেছেন প্রয়াত এই অভিনেতাকে।

সিয়াম তার ফেসবুক পেজে সুশান্তকে নিয়ে লেখেন, ‘সুশান্তের গল্পটা আর দশটা অভিনেতার জন্য ভীষণ অনুপ্রেরণার। সুশান্তের শুরুটা হয়েছিল ব্যাকগ্রাউন্ড ড্যান্সার হিসেবে। এরপর সিরিয়ালে ব্রেক। কোন গডফাদার ছিল না ইন্ডাস্ট্রিতে। একটা একটা করে সিঁড়ি ভেঙে এসেছিল সিনেমায়। পরিশ্রম করে আসতে হয়েছে বলেই বুঝতে পেরেছিল যে পরিশ্রম করেই যেতে হবে। সুশান্ত অসাধারণ অভিনেতা ছিলেন, অসাধারণ মানুষও ছিলেন বটে।’

এই অভিনেতার ভাষ্যে, ‘আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে মানসিক অবসাদকে গুরুত্ব দিয়ে দেখা হয় না। সুশান্তদের সবাই ছুঁয়ে দেখতে চায়, কিন্তু মন ছুঁয়ে যায় না কেউ! এই পেশার প্রেশার, মানসিক অবসাদ কুঁড়ে কুঁড়ে খায়। প্রতিযোগিতার নেগেটিভ একটা রেইসে নামিয়ে দেয়া হয়। অথচ কেউ স্বেচ্ছায় দৌড়াতে চায় না সেখানে।’

সিয়াম আরও যোগ করেন, ‘অন্ধকারে ঢলে পড়ার আগে সুশান্ত কি জানতেন, মানুষ কত সহজে ভুলে যায়? কত সহজে কীর্তিগুলো ঢাকা পড়ে যায় সময়ের স্রোতে! সুশান্তের মতো আর কেউ ঝড়ে না পড়ুক। মনের খবর রাখুক আশপাশের মানুষেরা। হারিয়ে না যাক আর কেউ অবসাদে, বিষাদে। ওপারে ভালো থাকুন সুশান্ত, আপনার রেখে যাওয়া চরিত্রগুলো এপারে ভালো রেখেছে আমাদের।’

উল্লেখ্য, ৩৪ বছর বয়সী সুশান্তের মৃত্যুর ঘটনার পর নানা তর্ক-বিতর্ক, মামলা, গ্রেপ্তার হয়েছে। কিন্তু তার মৃত্যুর রহস্য আজো উদঘাটন হয়নি। স্বল্প সময়ের ক্যারিয়ারে বেশকিছু হিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন সুশান্ত। এরমধ্যে ‘ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সী’, ‘কেদারনাথ’, ‘শোন চিড়িয়া’ ও ‘ছিছোরে’ ইত্যাদি। তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমার মধ্যে আরও রয়েছে ‘শুদ্ধ দেশি রোমান্স’, ‘রাবতা’, ‘দিল বেচারা’ ও ‘পিকে’। এ অভিনেতার সবচেয়ে আলোচিত সিনেমা ‘এম.এস. ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’।

Related Posts