সীমান্ত সুরক্ষায় আরও কঠোর আইন চীনের

সীমান্ত সুরক্ষায় আরও কঠোর আইন চীনের

সীমান্তের নিরাপত্তা জোরদারে কঠোর আইন পাস করেছে চীন। সীমান্তে ভারতের সঙ্গে উত্তেজনা ও আফগানিস্তান নিয়ে উদ্বেগের মধ্যেই শনিবার (২৩ অক্টোবর) নতুন আইন পাস করেছে তারা। আগামী বছরের প্রথম দিন থেকে কার্যকর হবে নতুন এই আইন। খবর রয়টার্সের।

চীনের নতুন আইনে তাদের সীমান্ত সুরকষায় প্রচলিত ব্যবস্থায় বড় কোনো পরিবর্তন হয়তো আসবে না, তবে এতে সীমান্ত নিয়ে দেশটির কঠোর মনোভাবই আরও স্পষ্টভাবে ফুটে উঠলো। গত আগস্টে আফগানিস্তানে তালেবান ক্ষমতা দখলের পর থেকে চীনমুখী শরণার্থী ঢল এবং সন্ত্রাসী অনুপ্রবেশ বৃদ্ধির আশঙ্কায় রয়েছে বেইজিং। আর ২০২০ সালের এপ্রিল থেকে ভারতের সঙ্গে সীমান্ত উত্তেজনা চলছে তাদের। এছাড়া করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতেও সীমান্তে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হয়েছে চীনা প্রশাসনের। চলতি বছর মিয়ানমার ও ভিয়েতনাম থেকে অবৈধ অনুপ্রবেশের জেরে চীনের ইউনান ও গুয়াংজি প্রদেশে করোনার সংক্রমণ বাড়তে দেখা গেছে। গণপ্রজাতন্ত্রী চীন প্রতিষ্ঠার ৭২ বছরে এই প্রথম সীমান্তরক্ষী বাহিনীগুলো পরিচালনায় সুনির্দিষ্ট আইন প্রণয়ন করলো দেশটি। নতুন আইনে বলা হয়েছে, আঞ্চলিক সার্বভৌমত্ব ও স্থল সীমান্ত নিরাপত্তা দৃঢ়ভাবে রক্ষায় কার্যকর ব্যবস্থা নেবে সরকার। বিশাল ভূখণ্ডের অধিকারী চীনের সঙ্গে রাশিয়া-উত্তর কোরিয়াসহ ১৪টি দেশের অভিন্ন সীমান্ত রয়েছে। ২২ হাজার কিলোমিটার দীর্ঘ এ সীমান্ত রক্ষার মূল দায়িত্ব চীনের সেনা ও পুলিশ বাহিনীর। নতুন আইন অনুসারে, কোনো সীমান্তে নিরাপত্তাজনিত উদ্বেগ দেখা দিলে সঙ্গে সঙ্গে সেই সীমান্ত বন্ধ করে দিতে পারবে চীনা বাহিনী।

অনলাইন ডেস্ক