• মঙ্গল. অক্টো ২৬, ২০২১

অসুস্থ হয়ে পড়লেন শেহনাজ

সেপ্টে ২, ২০২১

সিদ্ধার্থ শুক্লা বলতে অজ্ঞান ছিলেন শেহনাজ গিল। দু’জনে বন্ধুত্ব, ঝগড়া, খুনসুটি, দর্শকদের বেশ পছন্দ হয়েছিল। সেই জুটি বৃহস্পতিবার (০২ সেপ্টেম্বর) ভেঙে গেল।

মাত্র ৪০ বছর বয়সে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে না ফেরার দেশে চলে গেছেন বিগ বস জয়ী বলিউড অভিনেতা সিদ্ধার্থ শুক্লা। খবর শুনেই শুটিংয়ের সেট ছেড়ে দৌড়ে বেরিয়ে যান শেহনাজ গিল। পরে অসুস্থ হয়ে পড়েন অভিনেত্রী। শেহনাজের বাবা সন্তোখ সিংহ ভারতীয় সংবাদমাধ্যকে বলেন, আমার শরীর ভালো নেই। কথা বলতে পারব না। বিশ্বাস করতে পারছি না যে সিদ্ধার্থ নেই। মেয়ের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, শেহনাজ অসুস্থ হয়ে পড়েছে। তার ভাই শেহবাজ ইতোমধ্যেই বড় বোনের বাড়িতে চলে গেছে।

বিগ বস’-এর ১৩ তম সিজনে সিদ্ধার্থের সহপ্রতিযোগী ছিলেন শেহনাজ। সেই শোয়ের সুবাদেই তাদের রসায়ন দর্শকের সামনে আসে। বলিপাড়ার খবর, তারা খুব তাড়াতাড়ি বিয়ে করার কথাও ভাবছিলেন।  সিদ্ধার্থ এবং শেহনাজের নাম মিলিয়ে রাখা হয় ‘সিডনাজ’। ‘বিগ বস’-এ সিদ্ধার্থকে সব সময় আগলে রাখতেন শেহনাজ। অন্যান্য প্রতিযোগীদের সঙ্গে সিদ্ধার্থ বিতণ্ডায় জড়ালে তার পাশে থাকতেন শেহনাজ। সিদ্ধার্থের মৃত্যুতে শেহনাজকে নিয়ে চিন্তিত অনুরাগীরা। অনেকেই তাকে সমবেদনা জানিয়েছেন। শেহনাজকে নিয়ে চিন্তিত হিমাংশি খুরানাও। ‘বিগ বস’-এর ঘরে শেহনাজের সঙ্গে নানা কারণে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়েছিলেন হিমাংশি। কিন্তু, কঠিন এই সময়ে টুইটারে তিনি লেখেন, ‘সবাইকে কাঁদিয়ে শেষ হলো গল্প। শান্তিতে থেকো সিদ্ধার্থ শুক্লা। ভাবছি, শেহনাজের মনে এই সময় কী চলছে… ইশ আমি যদি তোমার পাশে এই সময় থাকতে পারতাম।’ বলিউড সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) রাতে ঘুমের আগে একটি ওষুধ খেয়েছিলেন সিদ্ধার্থ। সকালে সময়মতো না উঠায় এবং ডাকাডাকি করলে সাড়া না দেওয়ায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।  কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। হাসপাতালে তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকর মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন সিদ্ধার্থ। অভিনয় করেছিলেন কয়েকটি মেগা সিরিয়ালে। ‘বালিকা বধূ’ সিরিয়ালে অভিনয় করে দর্শক মনে জায়গা করে নিয়েছিলেন তিনি। এ ছাড়া ‘ঝালক দিখলা যা’, ‘খতড়ো কি খিলাড়ি’সহ একাধিক রিয়েলিটি শোতে অংশ নিয়েছিলেন তিনি।