সানজানার আত্মহত্যা: বাবার বিরুদ্ধে মামলা করলেন মা

রাজধানীর দক্ষিণখানে ১০তলা ভবনের ছাদ থেকে লাফিয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সানজানা মোসাদ্দিকার (২১) আত্মহত্যার ঘটনায় তার বাবা শাহীন আলমের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন নিহতের মা উম্মে সালমা।

আত্মহত্যার আগে চিরকুটে ওই ছাত্রী তার বাবাকে ‘পশু ও রেপিস্ট’ বলে উল্লেখ করেন। তিনি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ব্র‍্যাক ইউনিভার্সিটির তৃতীয় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী ছিলেন।

রোববার (২৮ আগস্ট) রাতে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন দক্ষিণখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুনুর রশীদ। তিনি বলেন, শনিবার (২৭ আগস্ট) দুপুরে দক্ষিণখান মোল্লারটেক এলাকার একটি ১০তলা ভবনের ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে সানজানা নামে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেন। সন্ধ্যা ৭টার দিকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। রাতেই সানজানার মা বাদী হয়ে মামলা করেন। এতে নিহতের বাবা শাহীন আলমকে আসামি করেছেন।

পুলিশ জানায়, ঘটনার দিন দুপুরের দিকে কাপড় শুকানোর জন্য বাসার সিকিউরিটি গার্ডের কাছ থেকে ছাদের চাবি নিয়ে ছাদে গিয়ে ওই ছাত্রী তাদের ১০তলা ভবন থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যা করেন।

নিহত শিক্ষার্থী সানজানার বাবা শাহীন আলম গত পাঁচ বছর আগে তাদেরকে না জানিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। দ্বিতীয় বিয়ের বিষয়টি জানাজানি হলে দুই পরিবারের মধ্যে টানাপোড়েন চলছিল। এরপর সানজানার মা দুমাস আগে বাবাকে ডিভোর্স দেয়। এজন্য তার বাবা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেমিস্টার ফিসসহ আনুষঙ্গিক খরচা দিতেন না বলে জানা যায়। ওই শিক্ষার্থীর মানসিক সমস্যা ছিল বলেও জানায় পুলিশ। আত্মহত্যার আগে একটি চিরকুট লেখে গেছেন ওই ছাত্রী। চিরকুটটি উদ্ধার করেছে দক্ষিণখান থানা পুলিশ। চিরকুটে লেখা রয়েছে, ‘আমার মৃত্যুর জন্য আমার বাবা দায়ী। একটা ঘরে পশুর সাথে থাকা যায়। কিন্তু অমানুষের সাথে না। একজন অত্যাচারী রেপিস্ট যে কাজের মেয়েকেও ছাড়ে নাই। আমি তার করুণ ভাগ্যের সূচনা।’

Related Posts