সন্তান না হওয়ায় কথা শোনানোয় তিন প্রতিবেশীকে পিটিয়ে হত্যা

সন্তান না হওয়ায় কথা শোনানোয় তিন প্রতিবেশীকে পিটিয়ে হত্যা

সন্তান না হওয়ায় কথা শোনানোয় তিন প্রতিবেশীকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছেন এক ব্যক্তি। নিহতেরা সবাই একই পরিবারের। গত বৃহস্পতিবার এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতের পাঞ্জাব প্রদেশের লুধিয়ানায়।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, তিন প্রতিবেশীকে হত্যার ঘটনায় লুধিয়ানার সালেম তাবরি এলাকা থেকে রবিন আলিয়াস মুন্না (৪৬) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

লুধিয়ানার পুলিশ কমিশনার মানদীপ সিং বলেন, নিহতদের মধ্যে এক নারী ও তাঁর স্বামী এবং শাশুড়ি আছেন। শুক্রবার সকালে এক দুধ বিক্রেতা ভুক্তভোগীদের না পেয়ে প্রতিবেশীদের ঘটনাটি জানান। পরে তারা দেয়াল বেয়ে ওই বাড়ির ভেতরে গিয়ে মরদেহগুলো দেখতে পান।

পুলিশের ভাষ্য, পেশায় অটোরিকশাচালক মুন্না নিঃসন্তান হওয়ায় তাঁকে কথা শোনাতেন প্রতিবেশী সুরিন্দার কৌর (৭০)। এ নিয়ে বিরক্ত হয়ে মুন্না বৃহস্পতিবার সকালে কৌর, তাঁর স্বামী চমন লাল (৭৫) ও শাশুড়িকে (৯০) হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেন। কৌর ও চমনের দুই সন্তান রয়েছে। তাঁরা বিদেশে থাকেন।

গ্রেপ্তারের পর নিজের দোষ স্বীকার করে নিয়েছেন মুন্না। সেইসঙ্গে তাঁর স্ত্রীকেও পুলিশ হেফাজতে আনার জন্য অনুরোধ করেছেন। মুন্না জানান, তিনি না থাকলে তাঁর স্ত্রীকে দেখা শোনা করার মতো কেউ নেই।

পুলিশ আরও জানায়, হত্যাকাণ্ডকে দুর্ঘটনা বোঝানোর জন্য ভুক্তভোগীদের ঘরে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন মুন্না। তাঁর কাছ থেকে এক ভুক্তভোগীর ক্যামেরা ও মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত হাতুড়িটিও উদ্ধার করেছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *