শীতাকুণ্ডের পরিস্থিতি ভয়াবহ -এ পর্যন্ত নিহত ৩৪ জন

সীতাকুণ্ডে আগুণের ভয়াবহতা চরম আকার ধারণ করেছে। দীর্ঘ ৯ ঘন্টা পর আগুণের উৎপত্তিস্থল কিছুটা নিয়ন্ত্রণে। সেখান থেকে উদ্ধার করা হয় একরে পর এক আগুনের দগ্ধ মৃতদেহ। এখন পর্যন্ত ৭ জন ফায়ার সার্ভিসের কর্মী সহ নিহতের সংখ্যা ৩৪ জন। তবে এর সংখ্যা আরো বাড়াতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। হতাহতের সংখ্যা চারশতাধিক। আহতদের চট্রগ্রাম মেজিকেল কলেজে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ মৃত্যুপুরিতে পরিণত হয়েছে।

এদিকে আগুণের সূত্রপাত সম্পর্কে জানা যায় হাইড্রোজেন পার অক্সাইড থেকে আগুণের সুত্রপাত। ডিপো অথোরিটি তথ্য গোপন করায় পানি ব্যবহারের ফলে ভয়াবহ বিস্ফোরণে আগুণের ভয়াবহতা আরো বেড়ে যায়। ফলে হতাহতের ঘটনাও বাড়ে।

এদিকে আগুন নেভানোর কাজে ইতি মধ্যে যোগ দিয়েছেন বাংলাদেশের সেনাবাহিনী সহ ফেনী, নোয়াখালী, কুমিল্লা ও বান্দরবানের ফায়ার সার্ভিসের প্রায় ২৫ টি ইউনিট।

Related Posts