লঞ্চে অগ্নিকাণ্ড: আরও একজনের মৃত্যু

ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে এমভি অভিযান-১০ লঞ্চে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় মোছা. শাহিনুর বেগম (৪৫) নামে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (২৯ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৭টার দিকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) তার মৃত্যু হয়। শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন ডা. এস এম আইয়ুব হোসেন বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের (আইসিইউ) ১৬ নম্বর বেডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোছা. শাহিনুর বেগমের (৪৫) মৃত্যু হয়েছে। তার শরীরের ৪০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল। এ ঘটনায় স্বামী বাচ্চু মিয়া (৫১) চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার শরীরের ৫ শতাংশ দগ্ধ রয়েছে। তার মেয়ে ইসরাত জাহান সাদিয়াও (২২) দগ্ধ, তার শরীরের ২০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে ও ছেলে সাইফুল্লাহ সাদিককে (১৬) প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। সাদিয়ার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলেও জানান তিনি। শাহিনুর বেগমের দেবর সাইফুল ইসলাম জানান, তাদের গ্রামের বাড়ি বরগুনার বেতাগী উপজেলার সরিষাপুর এলাকায়। সেখানেই তার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে। তবে, ঢাকার কেরানীগঞ্জের জিনজিরা এলাকায় তাদের ফার্মেসির ব্যবসা রয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) দিনগত রাত ৩টার দিকে ঢাকা থেকে বরগুনাগামী এমভি অভিযান-১০ লঞ্চটিতে আগুন লাগে। খবর পেয়ে বরিশাল, পিরোজপুর, বরগুনা ও ঝালকাঠির কোস্টগার্ড এবং ফায়ার সার্ভিস উদ্ধারকাজ শুরু করে। দগ্ধদের মধ্যে ৭২ জনকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের আশপাশের বিভিন্ন হাসপাতালে নেওয়া হয়। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে।

Related Posts