রাসিক মেয়রের নামে জালিয়াতি ও শতকোটি টাকার ভুয়া চুক্তি

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের পাসপোর্ট ও ইমেইল জালিয়াতি করে প্রায় শতকোটি টাকার ভুয়া চুক্তি করা হয়েছে। কোরিয়ান দূতাবাসের একটি চিঠি পাওয়ার পর বিষয়টি জানতে পারেন মেয়র। এ ঘটনার পেছনে আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র আছে বলে মনে করছেন তিনি।

আটটি ফায়ার ফাইটিং ট্রাক কিনতে রাজশাহী সিটি মেয়রের সঙ্গে প্রায় একশো কোটি টাকার চুক্তি করেছে কোরিয়ান একটি প্রতিষ্ঠান। এবিষয়ে চিঠি পাওয়ার পর জানতে পারেন মেয়র। অথচ বাস্তবে এধরনের কোন চুক্তিই হয়নি তার সাথে।

কোরিয়ান প্রতিষ্ঠান শিংশিং গ্লোবাল কোম্পানি লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী বিসি শিনের হয়ে বাংলাদেশের কোরিয়ান দূতাবাস ট্রাকগুলো বুঝে নেয়ার চিঠি পাঠালে বিষয়টি জানতে পারে সিটি করপোরেশন। এমনকি সময়মতো ট্রাকগুলো বুঝে না নেয়ায় ক্ষতিপূরণ চাওয়া হয়েছে ৩ লাখ ডলার।

সিটি মেয়র জানান, তার পাসপোর্ট, ই-মেইল ঠিকানাসহ ৯টি জাল নথি তৈরি করে ভুয়া চুক্তি করেছে একটি চক্র। এর পেছনে আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র রয়েছে বলে মনে করেন তিনি।

কোরিয়ান প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে বোয়ালিয়া মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। এছাড়া জবাব দেয়া হয়েছে কোরিয়ান দূতাবাস থেকে পাঠানো চিঠির।

মেয়রের ব্যক্তিগত তথ্য কিভাবে প্রতারক চক্রের হাতে গেল, তা খতিয়ে দেখছে সিটি করপোরেশন।

Related Posts