রাবি শিক্ষার্থীকে মারধরের ঘটনায় শিক্ষকদের প্রতিবাদ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) এক শিক্ষার্থীকে মধ্যরাতে মারধর করে বের করে দেওয়ায় প্রতিবাদে হলের সামনে অবস্থান নেয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।

শুক্রবার (২৪ জুন) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নবাব আব্দুল লতিফ হলের সামনে অবস্থান নেন বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা।

এ সময় শিক্ষকরা বলেন, একটা বিশ্ববিদ্যালয় এভাবে চলতে পারে না। প্রতিনিয়ত সাধারণ শিক্ষার্থীরা হলে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের দ্বারা শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। আমরা শিক্ষক হয়ে সেটা মেনে নিতে পারি না। এখন পর্যন্ত অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কোনো দৃষ্টান্তমূলক পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি। এ ঘটনায় শিক্ষকরা অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান। পরে হল প্রভোস্ট এএইচএম ড. মাহবুবুর রহমানের সঙ্গে বৈঠকে বসেন শিক্ষকরা। এসময় ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হবে বলে জানান তিনি।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. আসাবুল হক, পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. সালেহ হাসান নকীব, রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ও বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. কুদরত-ই-জাহান, আরবি বিভাগের অধ্যাপক ড. ইফতিখারুল আলম মাসউদ ও অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ফরিদ উদ্দীন খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। র আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব আব্দুল লতিফ হলের ২৪৮ নম্বর কক্ষের আবাসিক শিক্ষার্থী মো. মুন্না ইসলামকে মারধর ও গালিগালাজ করে তার বিছানাপত্র বাহিরে ফেলে দেন হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম ও তার অনুসারীরা।

Related Posts