বিয়ে বাড়িতে রাতেই হাজির হলেন ইউএনও

কঠোর বিধিনিষেধে মধ্যরাতে বিয়ের আয়োজন চলছে। কিছুক্ষণের মধ্য শুরু হবে লগ্ন। চারদিকে শুরু হয়েছে বিয়ের আনন্দ। বাড়ির সামনে গেইট, আলোকসজ্জাসহ সব প্রস্তুতিও সম্পন্ন। ঠিক সে সময়ে বাড়িতে হাজির উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোমেনা আক্তার।

বুধবার (২৮ জুুলাই) রাতে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার ধড্ডা এলাকার এ ঘটনা ঘটে। পরে হিন্দু সম্প্রদায়ের বিয়ের লগ্নের বিষয়টি চিন্তা করে দুই পরিবারের চারজনের উপস্থিতিতে বিয়ের কাজ সম্পন্ন করার অনুমতি দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত। আদালত সূত্র জানায়, হাজিগঞ্জ উপজেলার বাকিলা ইউনিয়নের কৈয়ারপোল এলাকার উচ্চঙ্গা গ্রামের হারাধন দাসের ছেলে কমল চন্দ্র দাসের সঙ্গে কুমিল্লার লাকসাম এলাকার অমল চন্দ্র দাসের মেয়ে রেখা রানী দাসের বিয়ে ঠিক হয়। বুধবার রাতে হাজীগঞ্জের নানার বাড়িতে বিয়ের আয়োজন চলে। খবর পেয়ে রাতেই বিয়ে বাড়িতে চলে যান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। পরে আদালতের নির্দেশে বিয়ে বাড়ির গেট খুলে ফেলাসহ সব অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়। এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোমেনা আক্তার বলেন, তিন মাস আগে তাদের বিয়ের লগ্ন ঠিক করা ছিল। হিন্দু বিয়ের লগ্ন একটা বড় বিষয়। তাই আমরা লগ্ন ঠিক রেখে অনুষ্ঠান বন্ধ করে ঘরের মধ্যে বিয়ের কাজ শেষ করার জন্য ব্যবস্থা করেছি।’