রাজশাহী মহানগরীতে ৪২ হাজার ব্যক্তিকে টিকা প্রদান

রাজশাহী মহানগরীতে ৪২ হাজার ব্যক্তিকে টিকা প্রদান
সিটি কর্পোরেশনের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় ,
রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের আন্তরিক প্রচেষ্টায় ওয়ার্ড পর্যায়ে আবারো করোনার গণটিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে। সিটি কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপনায় শনিবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ৩০টি ওয়ার্ডের ৮৪টি কেন্দ্রে ৪১ হাজার ১৮জনকে মর্ডানার ১ম ডোজ টিকা প্রদান করা হয়। এদিন মহানগরীতে সর্বমোট ৪২ হাজার ৬৯৫জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে।
রাসিকের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এফএএম আঞ্জুমান আরা বেগম জানান, গণটিকাদান ক্যাম্পেইনে ৭ ও ৮ আগস্ট দুইদিনে ৭৮ হাজার ৮৭৩জনকে টিকা প্রদান করা হয়। টিকার মজুদ শেষ হওয়ায় ৯ আগস্ট থেকে গণটিকাদান ক্যাম্পেইন স্থগিত করা হয়। নগরবাসীর চাহিদা বিবেচনায় মেয়র মহোদয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে যোগাযোগ করে মর্ডানা টিকা প্রদানের অনুরোধ জানান। মেয়র মহোদয়ের অনুরোধে নতুন করে ৬০ হাজার ৪৮০ ডোজ মর্ডানার ১ম ডোজ টিকা আমরা পেয়েছি। এরমধ্যে শনিবার ১ম ও ২য় ডোজ মিলে মোট ৪২ হাজার ৪৪৪ জনকে মর্ডানার টিকা প্রদান করা হয়। আগামী সোমবার ওয়ার্ড পর্যায়ে গণটিকাদান কর্মসূচি চলবে।
১৪ আগস্ট রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ৩০টি ওয়ার্ডে ৮৪টি কেন্দ্রে ১৯ হাজার ৩৩১জন পুরুষ ও ২১ হাজার ৬৮৭ জন নারী টিকা নিয়েছেন। ওয়ার্ড পর্যায়ে নারী ও পুরুষ মিলে মোট টিকা নিয়েছেন ৪১ হাজার ১৮জন। এরমধ্যে ১নং ওয়ার্ডে ২০৯৬, ২নং ওয়ার্ডে ২২০৬, ৩নং ওয়ার্ডে ১৫৪০, ৪নং ওয়ার্ডে ১৩২৬, ৫নং ওয়ার্ডে ১২১৮, ৬নং ওয়ার্ডে ৯০৭, ৭নং ওয়ার্ডে ৮৬৯, ৮নং ওয়ার্ডে ৩৯২, ৯নং ওয়ার্ডে ৯৩৩, ১০নং ওয়ার্ডে ৫৩৩, ১১নং ওয়ার্ডে ৮৮২, ১২নং ওয়ার্ডে ৭৩৬, ১৩নং ওয়ার্ডে ১২০৪, ১৪নং ওয়ার্ডে ১৮২০, ১৫নং ওয়ার্ডে ১০৪২, ১৬নং ওয়ার্ডে ১৪২৮, ১৭নং ওয়ার্ডে ২৫২০, ১৮নং ওয়ার্ডে ২৪০৮, ১৯নং ওয়ার্ডে ২৮০০, ২০নং ওয়ার্ডে ৫৪৩, ২১ নং ওয়ার্ডে ৭৫৬, ২২নং ওয়ার্ডে ৪২০, ২৩নং ওয়ার্ডে ৫১৯, ২৪নং ওয়ার্ডে ১২০৪, ২৫নং ওয়ার্ডে ১০৯৯, ২৬নং ওয়ার্ডে ২৩৪৮, ২৭নং ওয়ার্ডে ১১৫৮, ২৮নং ওয়ার্ডে ১৯৬৭, ২৯নং ওয়ার্ডে ১৫২৪ ও ৩০নং ওয়ার্ডে ২৬২০ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে দুইজন টিকাদানকারী স্বাস্থ্যকর্মী ও ৩জন স্বেচ্ছাসেবী নিয়োজিত ছিলেন।
এছাড়া রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (স্থানঃ টিচার্স ট্রেনিং কলেজ) কেন্দ্রে ১১৬২জনকে, পুলিশ হাসপাতাল কেন্দ্রে ৫৪ ও আইডি হাসপাতাল কেন্দ্রে ২১০জনকে টিকা প্রদান করা হয়েছে। মর্ডানার টিকার বাইরে এছাড়া ৯১জনকে সিনোফার্ম ও ১৬০ জনকে কোভিশিল্ড টিকা প্রদান করা হয়েছে।
উৎসবমুখর পরিবেশে আগ্রহ নিয়ে টিকা গ্রহণ করায় মহানগরবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। নগরবাসীর সহযোগিতা কামনা করে মেয়র বলেন, ২৫ বছর বা তার চেয়ে বেশি বয়সী নাগরিকরা রেজিস্ট্রেশন করে নিজ নিজ ওয়ার্ডে টিকা নিবেন। স্বল্প সময়ের মধ্যে রাজশাহী মহানগরীর সকল নাগরিককে টিকার আওতায় আনা হবে। আশা করছি, আমরা করোনার টিকা প্রদান কার্যক্রম সফলভাবে বাস্তবায়ন করতে পারবো।
উল্লেখ্য, উল্লেখ্য, ৭ আগস্ট ওয়ার্ড পর্যায়ে গণটিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। ৭ আগস্ট ৩৪ হাজার ৩৮৫জনকে টিকা প্রদান করা হয়। এরমধ্যে ৩০টি ওয়ার্ডে ৮৪টি কেন্দ্রে ২৭ হাজার ২৫৬জনকে প্রথম ডোজ মর্ডানার টিকা দেওয়া হয়। ৮ আগস্ট ২য় দিন ৪৪ হাজার ৪৮৮জনকে করোনার টিকা প্রদান করা হয়। এরমধ্যে মহানগরীর ৩০টি ওয়ার্ডের ৮৪টি কেন্দ্রে ৩৬ হাজার ৬৬৪জনকে প্রথম ডোজ মর্ডানার টিকা প্রদান করা হয়। নগরীতে ৭ ও ৮ আগস্ট দুইদিনে ৭৮ হাজার ৮৭৩জনকে টিকা প্রদান করা হয়। এরপর টিকার মজুদ না থাকায় ওয়ার্ড পর্যায়ে টিকাদান কর্মসূচি স্থগিত করা হয়। মাননীয় মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের আন্তরিক প্রচেষ্টায় নগরীতে আবারো শুরু হয় গণটিকাদান কর্মসূচি।

নিজস্ব প্রতিবেদক