• মঙ্গল. অক্টো ২৬, ২০২১

রাজশাহীতে চাকুরি দেয়ার নামে অসামাজিক কাজের প্রস্তাবে আটক ৬

সেপ্টে ১৮, ২০২১

রাজশাহী মহানগরীতে নারীর আর্থিক অসহায়ত্বকে কাজে লাগিয়ে চাকুরি দেয়ার কথা বলে অসামাজিক কার্যকলাপের প্রস্তাব ও প্রলোভন দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকায় তিন নারীসহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ।

গত শুক্রবার সন্ধ্যায় মহানগরীর গণকপাড়া মাজেদিয়া শপিং সেন্টার সংলগ্ন ‘আশ্রয়ন’ নামে এক আবাসিক হোটেলের কক্ষে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকালে নগর পুলিশের মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দসের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- মিজানুর রহমান, মিনারুল ইসলাম, শ্রী লক্ষীকান্ত বর্মন, মোসা. মৌসুমি, মোসা. সেতু ও মোসা. সুমি। প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়- বোয়ালিয়া মডেল থানার এসআই ইফতেখার মোহাম্মদ আল আমিন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে গত শুক্রবার বিকালে থানা এলাকায় টহল দিচ্ছিলো।

এসময় তার কাছে শাপলা (ছদ্মনাম) নামের এক নারী মৌখিকভাবে অভিযোগ করে বলে তার পরিবারের আর্থিক অবস্থা খুবই খারাপ। একটি চাকুরি খুঁজছিলো। এসময় তার পূর্ব পরিচিত আসামি মো. টুটুল (৪০) আর্থিক অসহায়ত্বের সুযোগে তাকে একটি প্রশিদ্ধ হোটেলে রিসিপসনে চাকুরি দেয়ার প্রলোভন দেয় ও বিভিন্ন সময়ে মোবাইলে যোগাযোগ করতে থাকে।

আসামির কথামতো ওইদিন বিকালে গণকপাড়া মাজেদিয়া শপিং সেন্টার সংলগ্ন ‘আশ্রয়’ নামক আবাসিক হোটেলে গেলে সেখানে আগে থেকে অবস্থান করা অপর আসামী মো. টুটুলসহ আরো অনেকজন তাকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে অসামাজিক কার্যকলাপের প্রস্তাব ও প্রলোভন দেয়। সে রাজি না হওয়ায় তাকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি দেখাতে থাকেন।

এমন অভিযোগের পরিপ্রক্ষিতে বোয়ালিয়া থানা পুলিশের ওই টিম শুক্রবার সন্ধ্যায় ভুক্তভোগীকে সাথে নিয়ে গণকপাড়া মাজেদিয়া শপিং সেন্টার সংলগ্ন আবাসিক হোটেল আশ্রয়ের একটি কক্ষে অভিযান চালিয়ে নারী ও পুরুষসহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করে।

এসময় ঘটনাস্থল থেকে একজন পালিয়ে যায়। তাদেরকে গ্রেপ্তারের সময় ওই কক্ষের সমুদ্বয় মালামাল জব্দ করা হয়। পলাতক আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে এবং গ্রেপ্তারকৃত বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।