স্থানান্তর রাজশাহীর করোনার টিকা কেন্দ্র

রাজশাহীতে করোনার টিকাদান কেন্দ্র টিচার্স ট্রেনিং কলেজে (টিটিসি) থেকে বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। সারাদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার ঘোষণা দেওয়ায় টিকাদান কেন্দ্র স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এফ এ এম আঞ্জুমান আরা বেগম টিকাদান কেন্দ্র স্থানান্তরের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ‘টিটিসির পরিবর্তে বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) থেকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল কেন্দ্রে টিকা দেওয়া হবে। ১১ সেপ্টেম্বর থেকে তা আবারও স্থানান্তর করা হবে রাজশাহী বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে।’ টিকা গ্রহণকারীদের অনুরোধ জানিয়ে রাসিক প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বলেন, ‘আগামী শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) থেকে শুক্রবার ও সরকারি ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত রাজশাহী বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে টিকা দেওয়া হবে। ১১ সেপ্টেম্বর থেকে রামেক হাসপাতাল কেন্দ্রের টিকার নিবন্ধনকারীদের রাজশাহী বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে স্থাপিত বুথগুলো থেকে টিকা গ্রহণের অনুরোধ করা হচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে জায়গার স্বল্পতা ও টিকা গ্রহণকারীদের সুরক্ষার কথা ভেবে গত ৩১ জুলাই করোনার টিকাদান কার্যক্রম রামেক হাসপাতাল থেকে টিচার্স ট্রেনিং কলেজে (টিটিসি) স্থানান্তর করা হয়েছিলো। তবে সারাদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার ঘোষণার কারণে টিটিসি থেকে তা আবারও সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।’ বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৩টায় রাজশাহী বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্স পরিদর্শন করেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার ড. মো. হুমায়ুন কবীর, জেলা প্রশাসক মো. আব্দুল জলিল, রাজশাহী সিভিল সার্জন ডা. মো. কাইয়ুম তালুকদার, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাপসাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. শামীম ইয়াজদানী, রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এফএএম আঞ্জুমান আরা বেগম। রাজশাহী মহানগরীতে সরকার নির্ধারিত চারটি কেন্দ্রে নিয়মিত করোনার টিকা দেওয়া হচ্ছে। কেন্দ্রগুলো হলো-রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল, রাজশাহী পুলিশ হাসপাতাল, রাজশাহী সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ) ও সংক্রামক ব্যাধি (আইডি) হাসপাতাল।

Related Posts