যৌতুক মামলা: কলেজ শিক্ষকের বিচার শুরু

যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগে করা মামলায় টাঙ্গাইলের মাওলানা মোহাম্মাদ আলী (এমএম আলী) সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো. আল আমিন ও তার বোন মনি তালুকদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। অভিযোগ গঠনের ফলে মামলার আনুষ্ঠানিক বিচার শুরু হয়েছে।

আজ সোমবার (৭ মার্চ) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারহা আসামিদের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ গঠন করেন। একই সঙ্গে আগামী ১৬ মার্চ সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য দিন ধার্য করেন।

এদিন দুই আসামি আদালতে উপস্থিত হন। এরপর তাদের নির্দোষ দাবি করে আসামিপক্ষের আইনজীবী অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত আসামিদের অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে অভিযোগ গঠন করেন। ২০২১ সালের ৩ মার্চ আল আমিনের স্ত্রী ফাহমিদা তালুকদার তুলি আদালতে এ মামলা করেন। মামলার পর আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে সমন জারি করেন। আসামিরা আদালতে হাজির না হওয়ায় গত বছরের ১৯ আগস্ট আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। এর পরেই আসামিরা আদালতে আত্মসমর্পণ করে বাদীর সঙ্গে আপসের শর্তে জামিন নেন। মামলায় বাদী অভিযোগ করেন, তিনি হিন্দু ধর্মের মেয়ে ছিলেন। আল আমিন ২০০৮ সালে তার গৃহশিক্ষক ছিলেন। তখন ফুসলিয়ে তাকে প্রেমের ফাঁদে ফেলেন আল আমিন। তিনি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। ২০২০ সালের ১ ডিসেম্বর তারা ইসলাম ধর্ম মতে বিয়ে করেন। বিয়ের কিছু দিন পর আল আমিন তার পরিবারের লোকজনের প্ররোচণায় বাদীকে যৌতুকের জন্য নির্যাতন শুরু করেন। সর্বশেষ ২০২১ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি আল আমিন অপর আসামির প্ররোচণায় যৌতুক দাবি করেন। বাদী যৌতুক দিতে অস্বীকার করলে আল আমিন বাদীকে মারধর করে বাসা থেকে বের করে দেন।

Related Posts