যেখানেই রাইফেলের গুলি সেখানে আশরাফ হাসানের কবিতার বারুদ-ড.মাহবুব

বিশিষ্ট কবি ও গবেষক ড. মাহবুব হাসান বলেছেন, ‘কবি আশরাফ হাসান সত্য ও সুন্দরের কবি। ভালোবাসার মানুষ, ভালোবাসার কবি। অন্যায়ের বিরুদ্ধে তার বলিষ্ঠ কণ্ঠ। যেখানেই রাইফেলের গুলি সেখানে আশরাফ হাসানের কবিতার বারুদ।’

তিনি রবিবার ( ৩১ জুলাই-২০২২) সন্ধা ৭ টায় সিলেট লেখক পরিষদের উদ্যোগে ও অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির সহযোগিতায় নগরীর দরগাহ গেইটস্থ সিলেট কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সাহিত্য আসর কক্ষে ৯০’র দশকের শক্তিমান কবি আশরাফ হাসানের দুটি গ্রন্থ ‘নির্বাচিত কবিতা’ ও ‘রাইফেলগুলো প্রত্যাহার করে নাও’ এর পাঠোন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

সিলেট লেখক পরিষদের সভাপতি দেওয়ান এ. এইচ মাহমুদ রাজা চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, নতুন এক মাত্রার নির্বাহী সম্পাদক কবি ও গবেষক ড. ফজলুল হক তুহিন, বিশিষ্ট কবি ও গবেষক মুকুল চৌধুরী।

অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব ও শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার আহমদ মাহবুব ফেরদৌসের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ কবি নাজমুল আনসারী। কবি আশরাফ হাসানের সাহিত্য ও কর্ম নিয়ে বক্তব্য রাখেন গল্পকার সেলিম আউয়াল, কবি আনোয়ার হোসেন মিসবাহ, কবি মামুন সুলতান, কবি আবদুল মুকিত অপি।

আবদুল কাদির জীবনের কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কবি ফয়জুল হক, মাসিক শাহজালাল সম্পাদক রুহুল ফারুক, প্রাবন্ধিক জাহেদুর রহমান চৌধুরী, কবি আব্দুল হক, মদন মোহন কলেজের প্রভাষক কবি সালমান ফরিদ, ছড়াকার কামরুল আলম, প্রাবন্ধিক বেলাল আহমদ চৌধুরী, কবি এখলাসুর রহমান, কবি সৈয়দ রেজাউল হক প্রমুখ।

কবি আশরাফ হাসানের ‘নির্বাচিত কবিতা’ ও ‘রাইফেলগুলো প্রত্যাহার করে নাও’ গ্রন্থ থেকে কবিতা আবৃত্তি করেন, আবৃত্তি সংগঠন ‘মুক্তাক্ষর’ এর বাচিক শিল্পী সাবর্নী গোস্বামী শুচি ও আফছানা আক্তার, খাদিজা বেগম, কবি উম্মে সুমাইয়া তাজবীন নীলা।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্কলারস হোম স্কুল এন্ড কলেজের প্রভাষক কবি সুজিত রঞ্জন দাস, এড. ছায়াদ আহমদ, খলিলুর রহমান ফয়সল, ঔপন্যাসিক সিরাজুল হক, সাংবাদিক আমিরুল ইসলাম চৌধুরী এহিয়া, মাহফুজুর রহমান জাহেদ, মকসুদ আহমদ লাল, কবি ছয়ফুল আলম পারুল, আব্দুল মুহিত দিদার, মঈন উদ্দিন আদর্শ মহিলা কলেজের প্রভাষক মাহবুবুর রউফ নয়ন, তাসলিমা খানম বীথি, মোহাম্মদ ইসমাইল, লুৎফা আহমদ লিলি, মাহফুজ বিল্লাহ মুরাদ, মাসুম আহমদ ইসা, আতাউর রহমান বঙ্গি,কবি ও ব্যাংকার নজমুল হক চৌধুরী, শিল্পী বাহাউদ্দিন বাহার, সাজিদুর রহমান, গাজী আব্দুল কুদ্দুস শমশাদ, কুবাদ বখত চৌধুরী রুবেল, বিমান বিহারী বিশ্বাস, মিলন চৌধুরী, আশিক, নাইম আহমদ, শেলী চক্রবর্তী, নাবিল, কামাল আহমদ, শামসুল আলম, জুবের আহমদ সার্জন, হেলাল আহমদ, সাদিক হেসেন এপলু প্রমুখ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ”নতুন এক মাত্রা’ সম্পাদক, কবি ও গবেষক ড. ফজলুল হক তুহিন বলেন, ‘কবিতার ভুবনে কবি আশরাফ হাসান নতুন কাব্য ভাষা নির্মাণে সক্ষম হয়েছেন। তার কিছু পঙক্তি আমাদেরকে বিপুলভাবে আন্দোলিত করে। তার অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকুক।’

লেখকের অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে কবি আশরাফ হাসান বলেন, ‘একজন লেখকের কাছে সারা বিশ্বটাই স্বদেশ। সারা বিশ্বের মধ্যে তারা স্বদেশকে খুঁজে বেড়ান। শেকড়ের সংযোগ আমাদেরকে সৃষ্টিশীলতায় উজ্জীবিত করে। মানুষের প্রতি কল্যাণকামীতা আর ভালোবাসার দায়বদ্ধতা আমাদের ভুলে গেলে চলবে না। সাহিত্যের গ্লোবাল প্লাটফরমে আমাদেরকে আসন করে নিতে হবে। তবেই আমাদের আত্মপরিচয়কে বিশ্বময় ছড়িয়ে দেওয়া সম্ভব।’

সভাপতির বক্তব্যে দেওয়ান এ. এইচ মাহমুদ রাজা চৌধুরী বলেন, ‘আশরাফ হাসানের কবিতার কল্পচিত্র সত্যের প্রতি অবিচল। যারা সত্যের প্রতি অবিচল থাকে তারাই পৃথিবীতে সমাদৃত হয়।’

Related Posts