মেঘনায় ইলিশ ধরায় ১৫ জেলের কারাদণ্ড

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মেঘনা নদীতে ইলিশ শিকার করায় ১৫ জেলেকে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. কামরুজ্জামান ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জেলেদের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেন। দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- ভোলা জেলার বাসিন্দা মো. ফারুক, মো. আলাউদ্দিন, পারভেজ হোসেন, ফারুক হোসেন, আব্বাছ হোসেন, বুলবুল আহমেদ, সাহাবুদ্দিন, বেল্লাল, আনোয়ার, হারুন, হেলাল ও লক্ষ্মীপুর সদরের চররমনী গ্রামের বাসিন্দা জামাল হোসেন, আখতার ফয়সাল ও সোহেল হোসেনসহ ১৫ জন। জেলা মৎস্য কার্যালয় সূত্র জানায়, জাটকা সংরক্ষণে আলেকজান্ডার থেকে চাঁদপুরের ষাটনল পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটার মেঘনা নদীতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। সরকারের এ নির্দেশনা পালনে জেলা ও উপজেলা মৎস্য বিভাগ, কোস্ট গার্ড ও পুলিশের যৌথ অভিযান অব্যাহত রয়েছে মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত কমলনগর উপজেলার মেঘনা নদীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৭ জন জেলেকে আটক করা হয়। এর মধ্যে শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে দুজনকে ছেড়ে দেওয়া হয়। বাকি আট জনকে ১০ দিন ও সাতজনকে ১৫ দিন করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। লক্ষ্মীপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম জানান, জব্দকৃত মাছ এতিমখানায় বিতরণ করা হয়েছে। দণ্ডপ্রাপ্তদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। জাটকা সংরক্ষণে নদীতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Related Posts