মুহিবুল্লাহ হত্যা: গ্রেপ্তার আরও এক রোহিঙ্গা

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা নেতা মোহাম্মদ মুহিবুল্লাহ হত্যার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আরও এক রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তার করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)। এ নিয়ে ঘটনায় পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হলো।

রোববার (৩ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার কুতুপালং ৫ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অভিযান চালিয়ে মো. ইলিয়াছ (৩৫) নামের ওই রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি ওই ক্যাম্পের বাসিন্দা।১৪ আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ানের অধিনায়ক পুলিশ সুপার মো. নাইমুল হক  বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।তিনি বলেন, উখিয়ার কুতুপালং ৫ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে মুহিবুল্লাহ হত্যার ঘটনায় জড়িত এক আসামি অবস্থান করছে- এমন খবরে রোববার দুপুর ১২টার দিকে ওই ক্যাম্পে অভিযান চালায় এপিবিএনের একটি দল। এ সময় সন্দেহজনক একটি বাড়ি ঘেরাও করলে এক ব্যক্তি কৌশলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে এপিবিএনের সদস্যরা তাকে ধাওয়া দিয়ে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। এ নিয়ে রোহিঙ্গা নেতা মোহাম্মদ মুহিবুল্লাহ হত্যার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এ পর্যন্ত ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানান এপিবিএন এর অধিনায়ক এর আগে গত শুক্রবার (১ অক্টোবর) উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে গ্রেপ্তার করা হয় মো. সলিম (৩৩) ও শওকত উল্লাহ (২৩) নামের দুই রোহিঙ্গাকে। শনিবার গ্রেপ্তার করা হয় আব্দুস সালাম (৩২) ও জিয়াউর রহমান (৩২) নামের আরও দুই রোহিঙ্গাকে।এদের মধ্যে মো. সলিম ও শওকত উল্লাহকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গত বুধবার রাতে উখিয়া উপজেলার লম্বাশিয়া ১-ইস্ট নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ডি-৮ ব্লকে নিজ সংগঠনের অফিসে অজ্ঞাত দূর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি পিস ফর হিউম্যান রাইটসের (এআরএসপিএইচআর) চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মুহিবুল্লাহ। পরদিন তার ছোট ভাই মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে উখিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন।