ব্রাজিলের কোপার স্কোয়াডে নতুন চার মুখ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বসছে শতবর্ষী আসর কোপা আমেরিকা। এর জন্য সবার আগে নিজেদের স্কোয়াড ঘোষণা করেছিল ব্রাজিল। নতুন কোচ দরিভার জুনিয়র, নিজের প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট সফল করতে বেশকিছু চমক রেখে ঘোষণা ছিলেন এই স্কোয়াড।

তবে তার দল ঘোষণার পর বদলে যায় টুর্নামেন্টের নিয়ম। ২৩ জন থেকে বাড়িয়ে ২৬ জনের স্কোয়াড ঘোষণা করতে পারবে দলগুলো, এমনটা জানায় টুর্নামেন্টের নিয়ন্ত্রক সংস্থা দক্ষিণ আমেরিকা ফুটবল কনফেডারেশন (কনমেবল)।

এই সুযোগে নতুন করে চারজনকে দলে ভিড়িয়েছেন ব্রাজিলিয়ান কোচ। ম্যানচেস্টার সিটির ম্যাচে চোখে আঘাত পান গোলকিপার এডারসন। ফলে টুর্নামেন্ট শুরুর আগমুহূর্তে ছিটকে গেলেন তিনি। তার পরিবর্তে ডাক পেয়েছেন সাও পাওলোর গোলকিপার রাফায়েল।

এ ছাড়া রক্ষণ, মাঝমাঠ ও আক্রমণভাগে একজন করে বাড়িয়ে, বর্ধিত ২৬ জনের স্কোয়াড দিয়েছেন দরিভাল জুনিয়র। গ্লেসন ব্রেমারকে মূল স্কোয়াডে না নেওয়ায় বেশ সমালোচনা হয়েছিল তার। এবার বর্ধিত দলে জুভেন্তাসের রক্ষণভাগের এই তারকা ডেকেছেন তিনি।

এ ছাড়া আতালান্তার মিডফিল্ডার এডারসন ও স্ট্রাইকার পেপেকে নতুন করে দলভুক্ত করেছেন ব্রাজিলের নতুন কোচ। দলের নতুন তিন ফুটবলারের নাম ঘোষণার সময় দরিভাল জুনিয়র বলেন, ‘যখনই ডাকা হোক না কেন, দলে থাকা সকল ফুটবলারকে মূল একাদশে জায়গা করে নিতে একই রকমের শর্ত এবং প্রতিযোগিতা পার করেই আসতে হবে।’

কোচের দায়িত্ব পাওয়ার পর মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বের আসর কোপার জন্য চলতি মাসের শুরুর দিকে ২৩ সদস্যের দল ঘোষণা করে ব্রাজিল। নিজের প্রথম বড় অ্যাসাইনমেন্টের জন্য ঘোষিত স্কোয়াডে চমক দেখান তিনি। আগে জানা গিয়েছিল ইনজুরির কারণে খেলতে পারবেন না নেইমার।

বাদ পড়েন অভিজ্ঞ মিডফিল্ডার ক্যাসেমিরো। সেলেসাওদের ঘোষিত স্কোয়াডে বিবেচিত হননি ফর্মহীনতায় ভুগতে থাকা রিচার্লিসন, জেসুস, ম্যাথিউস কুনহাদের মতো তারকারা। তবে চোট কাটিয়ে দীর্ঘদিন পর দলে ফিরেছেন গোলকিপার অ্যালিসন বেকার। প্রথমবারের মতো ডাক পেয়েছেন গুয়েলহার্মে অ্যারেনা ও ইভানিলসন।

কোপার আগে দুটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ খেলবে ব্রাজিল। ৮ জুন মেক্সিকো ও ১২ জুন যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে লড়বে সেলেসাওরা। এ ম্যাচ দুটোকে কোপার চূড়ান্ত প্রস্তুতির শেষ সুযোগ হিসেবে দেখছেন দরিভাল জুনিয়র।

২০ জুন পর্দা উঠবে ১৬ দলের অংশগ্রহণে কোপা আমেরিকা কাপ। তবে চার দিন পর নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলবে ব্রাজিল। ২৪ জুন কোস্টারিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে সেলেসাওদের শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশন। এরপর ২৮ জুন প্যারাগুয়ে ও ২ জুলাই পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের প্রতিপক্ষ কলম্বিয়া।