ব্রাজিলের কোচ হচ্ছেন পেপ গার্দিওলা

সন্দেহ নেই, পেপ গার্দিওলা বর্তমান সময়ের কোচদের মধ্যে অন্যতম প্রতিভাধর। বার্সেলোনা থেকে বায়ার্ন মিউনিখ হয়ে ম্যানচেস্টার সিটি, কোচ হিসেবে সাফল্যের বিজয়গাঁথা চলছেই তার। এমন একজনকে তো যে কোনো দলই অভিভাবক হিসেবে চাইবে! ব্রাজিলও নাকি স্প্যানিশ এই ফুটবল ব্যক্তিত্বকে কোচ হিসেবে চাইছে, বিনিময়ে থাকবে মোটা অংকের স্যালারিও।

গ্লোবো স্পোর্তের মতে, কাতার বিশ্বকাপ শেষে ব্রাজিল দলের কোচের পদ ছাড়বেন তিতে। তার জায়গায় বিদেশি কোনো কোচকেই বিবেচনা করছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। এ সম্পর্কে ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের পরিচালক জুনিনহো পলিস্তা বলেন, ‘তিতে হয়তো কাতার বিশ্বকাপের পরপরই জাতীয় দল থেকে বিদায় নেবে।’ ৬০ বছর বয়সি তিতের পরিবর্তে পেপ গার্দিওলা কোচ হলে সেটা ব্রাজিলের জন্য হবে সোনায় সোহাগা। ২০০২ সালের পর থেকে বিশ্বকাপের মঞ্চে শিরোপা নেই ব্রাজিলের। গার্দিওলা কোচ হলে তার হাত ধরেই সেই খরা কাটাতে পারে সেলেসাওরা। স্প্যানিশ দৈনিক মার্কার একটি প্রতিবেদন বলছে, গার্দিওলার ভাই ও তার এজেন্টের সঙ্গে নাকি ব্রাজিল ফুটবল কনফেডারেশন যোগাযোগও করেছে। চার বছরের চুক্তিতে ২০২৬ সাল পর্যন্ত পেপকে পেতে চায় তারা। গার্দিওলা চুক্তিতে সই করলে প্রতি বছর পাবেন ১২ মিলিয়ন ইউরো করে। গার্দিওলাকে পেতে খুবই আশাবাদী ব্রাজিল। তবে ঝামেলা অন্য জায়গায়। ম্যানচেস্টার সিটির সঙ্গে তার চুক্তির মেয়াদ ২০২৩ সাল নাগাদ। অর্থাৎ চুক্তির মেয়াদ শেষ না হলে তার সঙ্গে ব্রাজিলের সম্মতিতে পৌঁছার ব্যাপারটি কিছুটা ঝামেলাপূর্ণই।

Related Posts