বিয়েতে টক দই নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১৫

বিয়েতে টক দই নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১৫

লক্ষ্মীপুরে বিয়ের দাওয়াতের খাবারে একটি দই টক হওয়ায় বর ও কনেপক্ষের হামলায় পার্টি সেন্টারের কর্মীসহ ১৫ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় বুধবার সন্ধ্যায় পার্টি সেন্টারের স্বত্বাধিকারী রাকিবুজ্জামান রাকিব বাদী হয়ে সাতজনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ১২ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। এ ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এর আগে দুপুরে লক্ষ্মীপুর পৌর শহরের কুটুমবাড়ি চাইনিজ রেস্টুরেন্ট ও পার্টি সেন্টারে এ হামলার ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সদর মডেল থানাপুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বাদী রাকিব পার্টি সেন্টারের স্বত্বাধিকারী।  গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন— কনের বাবা খোকন ড্রাইভার ও খালাতো ভাই রুবেল হোসেন।

আহতরা হলেন— মামলার বাদী রাকিব, রেস্টুরেন্টের ম্যানেজার শাহাদাত হোসেন, বাবুর্চি রাসেল, পরান ও মাজেদসহ পার্টি সেন্টারের ১৫ জন স্টাফ-কর্মী।

পুলিশ জানায়, পৌর শহরের শাহপুর এলাকার বৃষ্টি নামে এক মেয়ের সঙ্গে সদর উপজেলার দালালবাজার ইউনিয়নের মহাদেবপুর গ্রামের বাসিন্দা আল-আমিনের বিয়ে হয়। সে উপলক্ষে পার্টি সেন্টারটিতে মধ্যাহ্নভোজসহ বিয়ের আনুষ্ঠানিক আয়োজন করা হয়। প্রথম পর্বের খাওয়াতে একটি দই টক হয়েছে বলে কনেপক্ষ অভিযোগ করেন।

এ নিয়ে কনেপক্ষ তর্কাতর্কি শুরু করেন। এতে বাদী রাকিব পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করেন। তাদের সঙ্গে বরপক্ষও উত্তেজিত হয়ে ওঠে। উভয়পক্ষ পার্টি সেন্টারের কর্মীদের ওপর হামলা করে। এতে পার্টি সেন্টারের অন্তত ১৫ কর্মী আহত হয়েছেন।

রাকিবুজ্জামান রাকিব বলেন, একটি মাত্র দই টক হওয়ায় বর ও কনেপক্ষ উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে হামলা করেছে। এতে আমিসহ আমার কর্মীরা আহত হয়েছেন। আমি মামলা করেছি।

তবে এ বিষয়ে বর ও কনেপক্ষের কারও সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ওসি মোসলেহ উদ্দিন বলেন, পার্টি সেন্টারে হামলার খবর পেয়ে পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনাস্থল থেকে হামলায় জড়িত দুজনকে আটক করা হয়েছে। পরে পার্টি সেন্টারের স্বত্বাধিকারী রাকিবের করা মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *