‘বিদ্রোহী’ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত আ.লীগের

পিরোজপুরে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ চেয়ারম্যান প্রার্থী মহিউদ্দিন মহারাজ প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে বৈঠক শেষে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। এ কে এম এ আউয়াল বলেন, মহিউদ্দিন মহারাজ দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করেন। এরপর তিনি চেয়ারম্যান পদে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের কথা জানান।

মহিউদ্দিন মহারাজ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে ‘বিদ্রোহী’ হিসেবে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছিলেন। দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মহিউদ্দিন মহারাজ। রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) জেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময়। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, রোববার দুপুর ১২টায় পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন ডেকেছে দলটি। সেখানে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মহিউদ্দিন মহারাজ আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেবেন।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, আগামী ১৭ অক্টোবর জেলা পরিষদের নির্বাচনে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। পিরোজপুরে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী হলেন জাতীয় মহিলা পরিষদের জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও পৌর আওয়ামী লীগের সদস্য সালমা রহমান। এ জেলায় চেয়ারম্যান পদে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন মহারাজ, নেছারাবাদ উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা মনি ও ভান্ডারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আবদুল্লাহ আল মাসুদ স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে মূল প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন সালমা রহমান ও মহিউদ্দিন মহারাজ।

Related Posts