বাইডেনের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন বিটিএস

কোরিয়ার জনপ্রিয় ব্যান্ড দল বিটিএস মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে আলোচনায় অংশ নিতে হোয়াইট হাউসে যাচ্ছে। আগামী মঙ্গলবার (৩১ মে) বিটিএস সদস্যরা হোয়াইট হাউসে বৈঠকে বসবেন।

বৃহস্পতিবার (২৬ মে) এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউস এ তথ্য জানিয়েছে। খবর রয়টার্সের। সম্প্রতি তিন দিনের এশিয়া সফর শেষে করেন বাইডেন। ক্ষমতা গ্রহণের পর এটিই তার এশিয়া সফর ছিল। সফরে তিনি দক্ষিণ কোরিয়ার নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ইউন সুক ইয়েলের সঙ্গেও বৈঠক করেন। এরপরই জার্মানি মনোনীত তরুণ দলটির সঙ্গে আলোচনায় বসার খবর জানানো হলো।

 

মূলত এশীয় ও এশীয় বংশোদ্ভূতদের প্রতি বিদ্বেষ থেকে অপরাধ ও সহিংসতা মোকাবিলা বিষয়ে জনপ্রিয় বিটিএসের সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করবেন জো বাইডেন। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এটি বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে।
 এশীয়দের প্রতি ঘৃণা-বিদ্বেষের ব্যাপারে বিটিএস টুইটারে একাধিক পোস্টে জানিয়েছে, আমার এশিয়ান হিসেবে বেশ বৈষম্যের শিকার হয়েছিলাম। কোনো কারণ ছাড়াই অপমান সহ্য করেছি এবং আমাদের চেহারার জন্য উপহাস করা হয়। এমনকি আমাদের এ প্রশ্নও করা হয়েছিল, এশিয়ানরা কেন ইংরেজিতে কথা বলে। এসব কারণে ঘৃণা ও সহিংসতা ছড়ার বেদনাকে আমরা ভাষায় প্রকাশ করতে পারি না।
 
বিশ্বজুড়ে দক্ষিণ কোরিয়ার ব্যান্ড বিটিএসের গান ও নাচে অসংখ্য ভক্ত তৈরি হয়েছে। ২০১৩ সালে দলটির আত্মপ্রকাশ ঘটে। এর সাত রয়েছে। ‍দলটির বাটার ও ডাইনামাইট গান করে আন্তর্জাতিক সাফল্য পেয়েছে। বিটিএসের ৭ সদস্য রয়েছে। গান গেয়ে তারা সামাজিক প্রচারাভিযানের মাধ্যমে তারা তরুণদের ক্ষমতায়নে কাজ করছে।
 
দক্ষিণ কোরিয়ার ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া অ্যালবাম বিটিএসের দখলে। ছয়টি আমেরিকান মিউজিক অ্যাওয়ার্ড, নয়টি বিলবোর্ড মিউজিক অ্যাওয়ার্ড, ২৪টি গোল্ডেন ডিস্ক অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে এ তরুণ ব্যান্ড দলটি। বিটিএস তাদের অ্যালবামের গণ্ডি পেরিয়ে হলিউডের সিনেমাতেও গেয়েছেন গান। পাশাপাশি টাইম ম্যাগাজিনেও জায়গা পেয়েছে কয়েকবার। চলতি বছর ফেব্রুয়ারিতে দ্বিতীয়বার আইএফপিআই গ্লোবাল রেকর্ডিং আর্টিস্ট অব দ্য ইয়ার মুকুট জিতে তারা।
 
 
 

Related Posts