বাংলাদেশিদের ইউক্রেন ছাড়ার পরামর্শ দেয়া হবে সহায়তা -পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

যুদ্ধাবস্থার মধ্যে থাকা ইউক্রেনের কোনও বাংলাদেশি দেশে ফিরতে চাইলে সরকার সহযোগিতা করবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ।মঙ্গলবার বিকেলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একথা জানান তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা অন্য যেকোনো সময় যেটা করি, কোনো দেশে বা কোনো অঞ্চলে খারাপ পরিস্থিতি হলে সেখানে থাকা নাগরিকদের সাবধান করে দেই। এ ক্ষেত্রেও সেটাই করা হয়েছে। আমরা কাউকে ছাড়তে বাধ্য করতে পারি না। এটা ব্যক্তিগতভাবে যারা আছেন তাদের ওপর নির্ভর করছে। কিন্তু তারা ফেরত আসতে চাইলে বাংলাদেশ সহায়তা করবে।

তিনি আরও বলেন, অনেক দেশের নাগরিক ইউক্রেন ছেড়ে চলে গেছেন, অনেকে এখনও যাচ্ছেন। সেক্ষেত্রে বাঙালি যে কেউ সহায়তা চাইলে আমাদের নিকটবর্তী পোল্যান্ড দূতাবাস বা অন্য দূতাবাস থেকে সহায়তা করা হবে।

এর আগে এক জরুরী পরিপত্রে তিনি জানান, ইউক্রেন প্রবাসী সম্মানিত বাংলাদেশীরা বর্তমান যুদ্ধাবস্থার প্রেক্ষিতে অপেক্ষাকৃত নিরাপদ স্থানে সরে যেতে পরামর্শ প্রদান করা হলো। এই নিরাপদ স্থান হতে পারে ইউক্রেনের বাইরে কোন নিরপেক্ষ দেশ অথবা ইউক্রেনের পশ্চিমাঞ্চলে পোল্যান্ড সংলগ্ন সীমান্ত এলাকা। স্থিতাবস্থা প্রত্যাবর্তনের পূর্ব পর্যন্ত এই আদেশ বহাল থাকবে।

এছাড়া র‌্যাব এর নিষেধাজ্ঞার চাপে থাকার বিষয়টি নাকচ করে দিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় কমিটির বৈঠকে উঠা মার্কিন চাপের ব্যাপারে তিনি জানান, নিষেধাজ্ঞা যাতে দ্রুত উঠে যায় সে চেষ্টা করা হচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা চাপ অনুভব করছি না। যুক্তরাষ্ট্র থেকে চাপ রয়েছে, এ রকম কোনো বক্তব্য আমাদের কোনো সদস্য দেননি। আমরা এটিকে চাপ বলব না। আমরা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যে দ্বিপাক্ষিক সংযোগ রেখেছি, তাদের দিক থেকে যে সাড়া পেয়েছি, সেটা নিয়ে কমিটিতে আলোচনা হয়েছে।

Related Posts