বঙ্গোপসাগরে তৈরি হতে যাওয়া ঝড়টি ‘খুবই তীব্র ঘূর্ণিঝড়ে’

বঙ্গোপসাগরে তৈরি হতে যাওয়া ঝড়টি ‘খুবই তীব্র ঘূর্ণিঝড়ে’

বঙ্গোপসাগরে তৈরি হতে যাওয়া ঝড়টি ‘খুবই তীব্র ঘূর্ণিঝড়ে’ পরিণত হতে পারে বলে জানিয়েছেন ভারতের আবহাওয়া বিভাগের (আইএমডি) প্রধান ডা. এম মহাপাত্র।

ভারতের একটি সংবাদমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাতকারে ডা. এম মহাপাত্র বলেছেন, বঙ্গোপসাগরে তৈরি হতে যাওয়া ঝড়টি আগামী ১১ মে পর্যন্ত উত্তর-উত্তর পশ্চিম দিকে কেন্দ্রীয় বঙ্গোপসাগরের দিকে অগ্রসর হতে পারে। এটি খুবই তীব্র ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। ১১ মে বঙ্গোপসাগরে ঝড়টির বাতাসের গতি ঘণ্টায় ১২০ কিলোমিটারের বেশি হতে পারে। এরপর ঝড়টির দিক পরিবর্তন হয়ে উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হতে শুরু করে বাংলাদেশ-মিয়ানমার উপকূলের কাছে পৌঁছে যাবে।

তিনি বলেন, ঝড়টি বাংলাদেশের উপকূলের দিকে অগ্রসর হওয়ার সময় শক্তি অর্জন করতে থাকবে এবং এটি পুরোপুরি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হওয়ার পরই এর সর্বোচ্চ তীব্রতা জানা যাবে। ঘূর্ণিঝড়ের কারণে এরই মধ্যে আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে সতর্ক করা হয়েছে।

এদিকে আজ মঙ্গলবার (৯ মে) বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি আরও শক্তিশালী হয়ে সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিণত হয়েছে। আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, লঘুচাপটি শক্তিশালী হয়ে বুধবারের (১০ মে) মধ্যে ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’য় রূপ নিতে পারে।

সোমবার (৮ মে) মধ্যরাতে সর্বশেষ আবহাওয়া পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ আন্দামান সাগর এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপটি ঘনীভূত হয়ে গত মধ্যরাতে একই এলাকায় সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিণত হয়েছে। এটি আরও ঘনীভূত হতে পারে।  সূত্র : নিউজ ১৮

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *