উদ্ধার আরও ১০ জন : ফেরিডুবি

উদ্ধার আরও ১০ জন : ফেরিডুবি

বাল্কহেডের ধাক্কায় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটের মাঝ নদীতে নোঙর করে রাখা রজনীগন্ধা নামের একটি ফেরি ডুবে গেছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২০ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার (১৭ জানুয়ারি) ডুবে যাওয়ার পর ফেরিতে থাকা কয়েকজন সাঁতরিয়ে পাশে থাকা ট্রলারে উঠলেও এখন কতজন নিখোঁজ রয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। ফেরি উদ্ধারে গঠনাস্থলে যাচ্ছে উদ্ধারকারী জাহাজ হামজা ও রুস্তম।

পাশাপাশি সিদ্দিকবাজার ফায়ার স্টেশন থেকে যোগ দিয়েছে ডুবুরি ইউনিট।

বিআইডব্লিউটিসি আরিচা কার্যালয়ের ডিজিএম খালেদ নেওয়াজ গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, আজ সকালে পাটুরিয়া ৫ নং ঘাটের কাছে বাল্কহেডের ধাক্কায় রজনীগন্ধা নামে একটি ইউটিলিটি ফেরি ডুবে গেছে। ফেরিতে ৭টি ছোটো ট্রাক ও ২টি বড় ট্রাক ছিল।

তিনি আরও বলেন, ঘনকুয়াশার কারণে মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) দিনগত রাত ২টা থেকে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া, আরিচা-কাজীরহাট ও ধাওয়াপাড়া-নাজিরগঞ্জ নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। যা বুধবার সকালেও চালু হয়নি। এমন অবস্থায় পাটুরিরা ৫নং ঘাটের কাছাকাছি অবস্থানে থাকা ফেরি রজনীগন্ধা পদ্মা নদীতে ডুবে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, যখন ফেরিটি ডুবে যায় তখন ফেরি থেকে অনেক আহাজারি ও যাত্রীদের চিৎকার শোনা যায়। এ সময় সবার মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

কয়েকজন জানান, ডুবে যাওয়া ফেরিতে থাকা বেশ কয়েকটি ট্রাক ভেসে যাচ্ছে। বর্তমানে ফেরিটিকে টাক বোট দিয়ে ভাসিয়ে রাখার চেষ্টা চলছে।