নিহত ১ ত্রাণ না পেয়ে নারী ইউপি সদস্যের স্বজনদের উপর হামলা

নিহত ১ ত্রাণ না পেয়ে নারী ইউপি সদস্যের স্বজনদের উপর হামলা

পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলায় ঘূর্ণিঝড় রিমালে ক্ষতিগ্রস্তরা স্থানীয় নারী ইউপি সদস্যের কাছ থেকে খাদ্য সহায়তা না পেয়ে তার স্বজনদের উপর হামলা করেছে। এতে ওই নারী ইউপি সদস্যের দেবর মো. আব্দুর রব নিহত হয়েছেন।

নিহত রব উপজেলার উত্তর নিলতী গ্রামের মৃত মকবুল হাওলাদারের ছেলে। পেশায় কাঠমিস্ত্রি রবের স্ত্রী এবং চার সন্তান রয়েছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় রিমালে গাছ পড়ে তার ঘরটিও মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

উপজেলার চিড়াপাড়া পারসাতুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের নারী সদস্য খাদিজা বেগম জানান, তিনি পিরোজপুর- ২ আসনের সংসদ সদস্য মো. মহিউদ্দিন মহারাজের কাছ থেকে তার আওতাধীন তিনটি ওয়ার্ডে বিতরণের জন্য ৩০ প্যাকেট খাদ্য সহায়তা পেয়েছিলেন এবং সেগুলো সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে বিতরণ করেন। তবে তার এলাকার সঞ্জয় ঘোষ, সঞ্জিব ঘোষ, শিশির ঘোষ, সলেমান সরদার, হুমায়ুন মাঝি, কমল পাটিকর, দিলিপ পাটিকর এবং দীপক পাটিকর খাদ্য সহায়তা না পেয়ে তার উপর ক্ষিপ্ত হয় এবং তাকে গত শনিবার দুপুরে গালমন্দ করে। পরবর্তী সময়ে তারা তার স্বামী মো. মজিবুর রহমানকেও বিকালে মারধর করে। তিনি বিষয়টি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মো. লায়েকুজ্জামান মিন্টুকে জানালে তিনি তাকে তার কাছে যেতে বলেন। শনিবার সন্ধ্যার পর স্বামী এবং দেবরদের নিয়ে চেয়ারম্যানের কাছে যাওয়ার সময় সঞ্জয় ঘোষসহ অন্যরা তাদের উপর লাঠিসোটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা করে। বেধরক পিটুনিতে খাদিজার দেবর আব্দুর রব গুরুতর আহত হন। তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে প্রথমে কাউখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর সেখান থেকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। বরিশালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মৃত্যু হয় আব্দুর রবের।এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত দুজনকে আটক করেছে বলে জানান কাউখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির। এ ঘটনায় একটি মামলাও প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান তিনি। ঘটনার সুষ্ঠ বিচার দাবি করেছেন সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান।