শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে সাময়িক বহিষ্কার রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলের ৬ শিক্ষার্থী

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ধূমপান, মারামারি, অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজসহ বিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে রাজশাহী নগরীর কলেজিয়েট স্কুলের ছয় শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) কলেজিয়েট স্কুলের প্রধান শিক্ষক ড. মোসা. নূরজাহান বেগম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলের ছাত্র, শিক্ষক ও অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলা হয়—শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ধূমপান, মারামারি, অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ ও বিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে ছয় ছাত্রকে চলতি বছরের ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত বহিষ্কার করা হলো। একই সঙ্গে বিদ্যালয়ের অন্য ছাত্রদেরকেও সতর্ক করেছেন প্রতিষ্ঠান প্রধান।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, বিদ্যালয়ে মারামারি ও অশ্লীল ভাষায় গালি প্রদানের অপরাধে চতুর্থ শ্রেণির তিন ছাত্র, ধূমপানের অপরাধে সপ্তম ও নবম শ্রেণির দুই ছাত্র এবং মারামারির অপরাধে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে কলেজিয়েট স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক আবুল হাশেমের সাথে কথা হয় ঢাকা মেইলের। তিনি বলেন, ওরা বিভিন্ন ঝামেলা শুরু করেছিল। মারামারি করে, আমরা নিষেধ করলেও কথা শোনে না। বারবার সতর্ক করার পরেও ওরা শোনে না। স্কুলে এসে সরাসরি ধূমপান করে। ছোটদেরকেও বাথরুমে ধরে নিয়ে গিয়ে সিগারেট খেতে বাধ্য করে।

কয়েক দিন আগের এক ঘটনার বিবরণ দিয়ে তিনি বলেন, কয়েকদিন একজন এক ছেলের পেনিসে লাথি মেরেছে। রক্ত বের হয়ে অন্যরকম অবস্থা তৈরি হয়েছিল। ফিল্মি কায়দায় মেরেছে। তাকেও সাসপেন্ড করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা খুব বিপদে আছি। আমরা তো ওদের মারধর বা শাসনও করতে পারি না। আগে শাসন ছিল, ছেলেরা ভয়ে কিছু করতো না। এখন সাসপেন্ড করায় আমাদের একমাত্র হাতিয়ার।

রাজশাহী জেলা শিক্ষা অফিসার নাসির উদ্দীন ঢাকা মেইলকে বলেন, বিষয়টি জানা নেই।

Related Posts