চামড়া ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার করা হলো ধানক্ষেত থেকে

চাঁদপুরে শাহরাস্তিতে বেলায়েত হোসেন নামে এক চামড়া ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (২৩ জুলাই) উপজেলার গঙ্গারামপুর গ্রামের একটি ধানক্ষেত থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বেলায়েত উপজেলার গঙ্গারামপুর গ্রামের মৃত মৌলভী মোকসেদুর রহমানের ছেলে। পুলিশের ধারণা, গলায় কিছু পেঁচিয়ে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার পর তার ফোনটি ও ছিনিয়ে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা। নিহতের পরিবার জানায়, বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) ঈদের দিন বিকেলে শ্বশুর বাড়ি থেকে আসা স্বজনদের এগিয়ে দিতে স্থানীয় যাদবপুর বাজারে যান বেলায়েত। কিন্তু রাত ১টা পর্যন্ত তিনি বাসা ফিরে আসেননি। পরে স্ত্রী কুলসুম বেগম তার ফোনে কল দিলে পরপর দুইবার রিং হলেও পরে ফোন বন্ধ পান। শাহরাস্তি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মান্নান জানান, শুক্রবার (২৩ জুলাই) সকালে তাদের পাশের বাড়ির এক নারী ধানক্ষেতের পাশে ছাগল চরাতে গিয়ে বেলায়েত হোসেন রিপনের মরদেহ দেখতে পান। পরে থানা পুলিশকে ঘটনাটি জানান স্বজনরা। তারপরই সংশ্লিষ্ট সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আবুল কালাম চৌধুরীসহ তিনি ঘটনাস্থলে যান। দুপুরে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত বেলায়েত হোসেন রিপনের স্ত্রী কুলসুমা বেগম জানান, তার স্বামী মূলত কৃষি কাজ করতেন। এবারই প্রথম কোরবানির পশুর চামড়া কেনার ব্যবসা শুরু করেন। পরিবারে তাদের এক ছেলে এবং দুইটি মেয়ে রয়েছে। চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) সুদীপ্ত রায় জানান, হত্যার ঘটনা অনুসন্ধানে পুলিশ মাঠে নেমেছে। একই সঙ্গে নিহতের কাছ থেকে নিয়ে যাওয়া ফোন বন্ধ থাকলেও তার অবস্থান নিশ্চিত হতে এরইমধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার শুরু করা হয়েছে জেলা পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ জানান, হত্যাকাণ্ডে যারাই জড়িত থাকুক না কেন। আপাতত তারা গা ঢাকা দিয়ে থাকলেও পুলিশের হাতে ধরা পড়তেই হবে।শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বিকেলে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।
 

Related Posts