থার্টি ফার্স্ট নাইটে মদপান, শিক্ষার্থীর মৃত্যু

থার্টি ফার্স্ট নাইটে মদপান, শিক্ষার্থীর মৃত্যু

রাজশাহীর কাটাখালীতে থার্টি ফার্স্ট নাইটের পিকনিকে অতিরিক্ত মদপানে আছাদুল ইসলাম (২২) নামে এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে।

রোববার (২ জানুয়ারি) ভোরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। আছাদুল রাজশাহীর কাটাখালীর সমসাদিপুর এলাকার আকালু মণ্ডলের ছেলে। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে অধ্যয়নরত ছিলেনএদিকে একই ঘটনায় রামেক হাসপাতালে আরও ৯ জনকে ভর্তি করা হয়েছে। এরা হলেন- নগরীর মতিহার থানার চর শ্যামপুর এলাকার হায়দার আলীর ছেলেমনিরুল ইসলাম (২৫), মো. মন্ডল শেখের ছেলে শাহাদাত হোসেন (২৫), তৈমুর রহমানের ছেলে জাকির হোসেন (২৫), নুরুল ইসলামের ছেলে তাশিক ইসলাম (৩২), আব্দুস সাত্তারের ছেলে মিন্টু মিয়া (২৬), এরশাদ আলীর ছেলে ভাবলু (২৭), সাদেক আলীর ছেলে নাসির উদ্দিন (৩০), লালচান মিয়ার ছেলে মো. মিঠু (৩২) এবং কাটাখালী থানার সমসাদিপুর এলাকার রমজান আলীর ছেলে মো. পারভেজ (২২)। এরা সবাই থার্টি ফার্স্ট নাইটে মদ্যপান করেছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। রামেক হাসপাতাল পুলিশ বক্সের ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) রুহুল আমিন  বলেন, শনিবার (১ জানুয়ারি) রাত ১১টার দিকে আছাদুল ইসলামকে তার পরিবারের লোকজন রামেক হাসপাতালে ভর্তি করে। তিনি থার্টি ফার্স্ট নাইটে পিকনিক করতে গিয়ে অতিরিক্ত মদপান করেছিলেন। তাকে ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। আজ (রোববার) সকালের দিকে তার মৃত্যু হয়। এসআই আরও বলেন, রোববার (২ জানুয়ারি) রামেক হাসপাতালের ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে আরও ৯ জনকে একই ঘটনায় ভর্তি করা হয়। তার সবাই ওই দিন পিকনিকে মদ্যপান করেছিলেন। সেই মদের বিষক্রিয়ার ফলে তাদের পেটের পিড়ার সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তব্যরত চিকিৎসক। রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী বলছেন, বর্তমানে রামেক হাসপাতালে সেবার মান বাড়ানো নিয়ে বেশ তৎপর রয়েছি। মদপানে আছাদুলের মৃত্যুর পর আরও নয়জন ভর্তি হয়েছে। তাদের চিকিৎসার জন্য কতর্ব্যরত চিকিৎসকদের সর্তক থাকতে বলা হয়েছে। আপাতত তারা বেশ সুস্থ আছেন। তবে দু-একজনের অবস্থা এখনো আশঙ্কাজনক। এ বিষয়ে রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম  বলেন, থার্টি ফার্স্ট নাইটে অতিরিক্ত মদপান করায় আছাদুল নামের এক শিক্ষার্থীর আজ সকালে মৃত্যু হয়েছে। তার মৃত্যুর পর আরও ৯ জন রামেক হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। তারা সবাই ‘রয়্যাল’ নামক মদপান করে অসুস্থ হয়েছে বলে জানা গেছে। ওসি আরও বলেন, আছাদুলের মরদেহ বর্তমানে রামেক মর্গে আছে। ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে তা হস্তান্তর করা হবে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অনলাইন ডেস্ক