ড্রেনে পড়ে মৃত্যু: সাদিয়ার পরিবারকে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে রুল

চট্টগ্রামে ড্রেনে পড়ে নিহত বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী সেহরীন মাহবুব সাদিয়ার (২০) পরিবারকে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ কেন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত। একই সঙ্গে ওই ড্রেনে পড়ে কতজন নিখোঁজ, নিহত ও আহত হয়েছেন তাও জানতে চাওয়া হয়েছে। আগামী দুই মাসের মধ্যে এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের প্রতিবেদন দিতে বলা হয়।নিহত সাদিয়ার পরিবারকে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশনা চেয়ে দায়ের করা রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে রোববার (৫ ডিসেম্বর) বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদেশের বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন আইনজীবী মো. শাহীনুজ্জামান শাহীন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার অনীক আর হক। তাকে সহযোগিতা করেন আইনজীবী মো. শাহীনুজ্জামান। শাহীনুজ্জামান জানান, কোনো উন্নয়নমূলক কাজ চলাকালীন পথচারীদের পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা না করা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, রুলে তাও জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। এর আগে গত ২৫ নভেম্বর আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক) ও সিসিবি ফাউন্ডেশনের পক্ষে ব্যারিস্টার অনিক আর হক এ রিট করেন। রিটে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়। এরও আগে গত ২৭ সেপ্টেম্বর রাত সোয়া ১০টায় চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ বাদামতলী এলাকায় রাস্তার পাশের ড্রেনে পড়ে নিখোঁজ হন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী সেহেরিন মাহবুব সাদিয়ার (২০)। নিখোঁজের পাঁচ ঘণ্টা পর তার মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস। সাদিয়া চট্টগ্রামের ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের স্নাতক প্রথমবর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তার বাড়ি নগরীর হালিশহর বড়পোল এলাকায়। তার আগে ২৫ আগস্ট চট্টগ্রামের মুরাদপুরে পানির নিচে ডুবে থাকা রাস্তায় হাঁটার সময় ড্রেনে পড়ে গিয়ে এক ব্যক্তি নিখোঁজ হন। নগরীর মুরাদপুর পুলিশ বক্সের কাছে শুলক বহর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

Related Posts