টাঙ্গাইলে নৌকা প্রার্থীর ৩ সমর্থক গুলিবিদ্ধ টাঙ্গাইলে, এলাকায় উত্তেজনা

টাঙ্গাইলে নৌকা প্রার্থীর ৩ সমর্থক গুলিবিদ্ধ টাঙ্গাইলে, এলাকায় উত্তেজনা

টাঙ্গাইল সদর উপজেলার জুগনী এলাকায় নির্বাচনী সহিংসতায় তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। রোববার (২৪ ডিসেম্বর) রাত ১১টার দিকে উপজেলার বাঘিল ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

গুলিবিদ্ধরা হলেন- বাঘিল ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রোকনুজ্জামান রোকন, কর্মী এমদাদুল ও সিয়াম। এ ঘটনার পর এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। সতর্ক অবস্থানে রয়েছে পুলিশ।

টাঙ্গাইল-৫ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মামুন অর রশিদ জানান, রাতে বাঘিল ইউনিয়নে নৌকার পক্ষে তার কর্মী সমর্থকরা মোটরসাইকেল নিয়ে মিছিল বের করে। মিছিলটি বিভিন্ন এলাকা ঘুরে জুগনী এলাকায় পৌঁছালে বর্তমান এমপি স্বতন্ত্র প্রার্থী ছানোয়ার হোসেনের সমর্থকরা মিছিলে অতর্কিত গুলি চালায়। এতে ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

এদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান এমপি মো. ছানোয়ার হোসেন দৈনিক কালবেলাকে বলেন, এটা সাজানো। মানুষ এসব বুঝতে পারে; যেখানে গুলিবিদ্ধ হলো সেখানে মানুষ তো একটু হলেও দৌড়াদৌড়ি করবে। তা ছাড়া আশপাশের মানুষ জানবে। তা না হয়ে হঠাৎ জানতে পারলাম যে আমার কর্মীরা গুলি করেছে, এটা কোনো দিনই সম্ভব না। তারা নানা রকম ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হচ্ছে। এতে আমার কোনো ক্ষতি করতে পারবে না। সাধারণ ভোটার আমার সঙ্গে রয়েছে। আমার জনপ্রিয়তা দেখে আমাকে ফাঁসাতে নানা রকম চেষ্টা করছে। তবে এটুকু বলতে পারি, ঘটনা সুষ্ঠু তদন্ত করলে জানা যাবে এই গুলি কোথায় থেকে ঘটেছে। এটা আমার মনে হয় তাদের কোনো জায়গাতে হয়েছে, এখন এটি আমাদের ওপর চাপাচ্ছে।

শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দায়িত্বরত ইনটার্ন চিকিৎসক অরুপ কুমার পাল জানান, গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তিনজনকে হাসপাতালে আনা হয়। তাদের শরীর থেকে গুলি বের করা হয়েছে। বর্তমানে তারা আশঙ্কামুক্ত।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া জানান, গুলিবিদ্ধ তিনজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে। চিকিৎসক জানিয়েছেন তাদের সবার অবস্থা আশঙ্কামুক্ত।

এদিকে টাঙ্গাইল সদর থানার ওসি লোকমান হোসেন জানান, নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা স্বতন্ত্র প্রার্থীর অফিসের সামনে গেলে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকরা গুলি চালান। এতে তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এ ঘটনায় দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।