জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ড. এ কে আবদুল মোমেনের অভিনন্দন

জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে পুনর্নিয়োগ পাওয়ায় তোশিমিতসু মোতেগিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন।

জাপানে বাংলাদেশ দূতাবাস জানায়, বাংলাদেশ-জাপান অংশীদারিত্বকে ‘ব্যাপক ভিত্তিক স্তর’ থেকে ‘কৌশলগত পর্যায়ে’ উন্নীত করতে টোকিওর সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার দৃঢ় আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

দুদেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্পর্ককে আরও সুসংহত করতে বিশেষ করে অবকাঠামো, আইসিটি, উচ্চ প্রযুক্তির পণ্য, ইলেকট্রনিক্স, গভীর সমুদ্রে মাছ ধরা এবং খনিজ সম্পদ আহরণ, বায়ো-টেক পণ্য, নবায়নযোগ্য জ্বালানি ও জনশক্তি নিয়োগসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে নতুন উদ্দীপনায় কাজ করার ওপর জোর দেন ড. মোমেন।একইসঙ্গে তিনি মহামারি চলাকালীন জাপান সরকারের বাংলাদেশকে ৩০ লাখ ভ্যাকসিন এবং অন্যান্য সহায়তা দেওয়ার ক্ষেত্রে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোতেগির ব্যক্তিগত হস্তক্ষেপের আন্তরিক প্রশংসা পুনর্ব্যক্ত করেন।

ড. মোমেন বলেন, ঢাকা ২০২২ সালে কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ৫০তম বার্ষিকী উদযাপনের অপেক্ষায় রয়েছে।

জাপানকে বাংলাদেশের সত্যিকারের এবং বিশ্বস্ত বন্ধু হিসেবে উল্লেখ করে গভীর কৃতজ্ঞতার সঙ্গে বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠা দিবস থেকে জাপান সরকার ও জনগণের অবিচল সমর্থনের কথা স্বীকার করেন ড. মোমেন।