ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা, প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

বরিশালের বাবুগঞ্জে স্কুলছাত্রী শিশুকে শ্লীলতাহানির চেষ্টায় মামলা হয়েছে। শিশুটি একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। মঙ্গলবার শিশুটির মা মোসা. সুমি আক্তার বাদী হয়ে প্রধান শিক্ষককে আসামি করে বাবুগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন।

থানার মামলা সূত্রে ও এলাকাবাসী জানান, গত ২৩ নভেম্বর শিশুটি বাড়ি থেকে স্কুলে যায়। স্কুলের ক্লাস চলাকালে শিশুটি তার সহপাঠীর সঙ্গে পেছনের বেঞ্চে বসলে প্রধান শিক্ষক আ. সালাম বেপারী  শিশুটির পাশে বসা থাকা শিশুটিকে কৌশল অন্যত্র বসায়। এ সুযোগে প্রধান শিক্ষক ওই শিশুটির আপত্তিকর স্থানে হাত দিলে শিশুটি ভয় পেয়ে ক্লাস থেকে বের হয়ে পার্শ্ববর্তী তার মামার বাড়িতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়ে। এ ঘটনাটি পরেন দিন শিশুটি বাড়িতে গিয়ে তার মায়ের কাছে ঘটনাটি ফাঁস করে দেয়। শিশুটির মা বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আব্দুল রশিদ মৃধার কাছে প্রধান শিক্ষকের বিচার দাবি করেন। স্থানীয়ও ম্যানেজিং কমিটি ঘটনাটির সুষ্ঠু বিচার করার জন্য শিশুটির মাকে আশ্বাস দেন। কিন্তু ঘটনা ৩-৪ দিন অতিবাহিত হলেও স্থানীয় ও বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি প্রধান শিক্ষক আ. সালাম বেপারীর বিরুদ্ধে কোনো বিচার না করে ঘটনাটি ধামাচাপার চেষ্টা চালায়। পরে কোনো উপায় না পেয়ে প্রবাসে থাকা তার স্বামীকে ঘটনাটি জানান। শিশুটির পিতার পরামর্শে শিশুটির মা বাদী হয়ে প্রধান শিক্ষক আ. সালাম বেপারীকে আসামি করে বাবুগঞ্জ থানায় ৩০ নভেম্বর মঙ্গলবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন বাবুগঞ্জ থানার ওসি মো. মাহাবুবুর রহমান জানান, আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Related Posts