এবি পার্টির বেনজীরের শুদ্ধাচার সনদ প্রত্যাহারের দাবি

এবি পার্টির বেনজীরের শুদ্ধাচার সনদ প্রত্যাহারের দাবি

সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ পদে থেকে অপরাধ করেছেন তাকে সেনা আইন ও ফৌজদারি দুই আইনেই বিচারের আওতায় আনার দাবি করেছেন এবি পার্টির আহ্বায়ক এ এফ এম সোলায়মান চৌধুরী। এ সময় তিনি পুলিশের সাবেক আইজি বেনজীর আহমেদের শুদ্ধাচার সনদ (দক্ষতা ও সততার জন্য পাওয়া পুরস্কার) প্রত্যাহারের দাবিও জানান।

শুক্রবার (৩১ মে) রাজধানীর পল্টনের বিজয়নগরে এবি পার্টি আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে তিনি এ সব কথা বলেন।

সোলায়মান চৌধুরী বলেন, ‘সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ পদে থেকে অপরাধ করেছেন তাকে সেনা আইন ও ফৌজদারি দুই আইনেই বিচারের আওতায় আনতে হবে।’

একইসঙ্গে বেনজীর আহমেদের শুদ্ধাচার সনদ প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘অশুদ্ধ ও রং হেডেড সরকারপ্রধানের পক্ষেই এমন চরম দুর্নীতিগ্রস্ত লোককে শুদ্ধাচার পুরস্কার দেওয়া সম্ভব।’

এ সময় দলের সদস্যসচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু বলেন, ‘গত ১৬ বছরে আওয়ামী লীগ সরকার কয়েক হাজার বেনজীর ও আজিজ তৈরি করেছে। এদেরকে অবৈধ সম্পদ অর্জনের সুযোগ দিয়ে তার বিনিময়ে এদের কাছ থেকে অসাংবিধানিক ও অবৈধ সার্ভিস নিয়েছে সরকার। ফলে দেশের সর্বক্ষেত্রে আজ হাহাকার। আওয়ামী লীগ মুখে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রতিষ্ঠার কথা বললেও বাস্তবে তারা দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব বিরোধী প্রধান শক্তি।’

এবি পার্টির আহ্বায়ক এ এফ এম সোলায়মান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও দফতর সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুল্লাহ আল মামুন রানার সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন- এবি পার্টির যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম, যুগ্ম সদস্যসচিব ব্যারিস্টার আসাদুজ্জামান ফুয়াদ, সিনিয়র সহকারী সদস্যসচিব আব্দুল বাসেত মারজান প্রমুখ।