এবারও পশু পরিবহন করবে বাংলাদেশ রেলওয়ে

এ বছরও কোরবানির ঈদে পশু পরিবহনের জন্য ‘ক্যাটল সার্ভিস’ ট্রেন পরিচালনা করবে বাংলাদেশ রেলওয়ে। ঈদের চাঁদ দেখা সাপেক্ষে কোরবানির ঈদের ৪ দিন আগে থেকে এ সার্ভিস পরিচালনা করা হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ রেলওয়ের ঢাকা বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা শওকত জামিল মোহসি।

সোমবার (২০ জুন) বিকেলে তিনি সময় সংবাদকে জানান, এবার উত্তরবঙ্গ চট্টগ্রাম এবং ময়মনসিংহ জামালপুর অঞ্চলের পশু পরিবহনের সব প্রস্তুতি তারা সম্পন্ন করেছেন। তবে চাহিদা অনুসারে ট্রেনের সংখ্যা বাড়ানোর প্রস্তুতিও রয়েছে রেলের।

ট্রেনে পশু পরিবহন বাড়ানোর জন্য ওইসব অঞ্চলের ব্যাবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় করা হচ্ছে জানিয়ে মোহসি বলেন, প্রচার প্রচারণা চালানো হচ্ছে গরু উৎপাদনশীল এলাকাগুলোতে, যাতে ঢাকায় ট্রেনে করে গরু সরবরাহ বাড়ে। কম খরচে ঢাকায় কোরবানির পশু পরিবহন করতে পারলে খামারিরা লাভবান হবেন। মধ্যস্বত্ত্বভোগীরা তাদের লাভের অংশ খেয়ে ফেলতে পারবে না বলেও জানান তিনি।

এবার প্রতিটি গরু বা মহিষ ঢাকায় পরিবহন করতে খরচ পড়বে মাত্র ৫০০ টাকা। আর ছাগল পরিবহনের খরচ পড়বে ৩০০ টাকা। এ দিকে ঈদুল আজহায় ট্রেনের অগ্রিম টিকেট বিক্রি শুরু হবে আগামী ১ জুলাই থেকে বলেও জানান শওকত জামিল মোহসি। মোহসি জানান, আগামী ১ জুলাই থেকে শুরু হবে পবিত্র ঈদ উল আজহার আগাম টিকিট বিক্রি। এবারও ৫০ শতাংশ কাউন্টার আর ৫০ শতাংশ টিকিট মিলবে অনলাইনে। ১ জুলাই থেকে ৫ জুন পর্যন্ত চলবে অগ্রিম টিকিট বিক্রি। ১ জুলাই ৫ জুলাইয়ের, ২ জুলাই ৬ জুলাইয়ের, ৩ জুলাই ৭ জুলাইয়ের, ৪ জুলাই ৮ জুলাইয়ের এবং ৫ জুলাই ৯ জুলাইয়ের টিকিট বিক্রি হবে। প্রতিদিন সকাল ৮ টা থেকে একইসঙ্গে কাউন্টার ও অনলাইনে টিকিট বিক্রি হবে। এবারও কমলাপুর ছাড়াও রাজধানীর তেজগাঁও, বিমানবন্দর, বনানী ও গুলিস্তানের পুরানো রেলস্টেশনে একযোগে টিকিট বিক্রি হবে বলেও তিনি জানান।

Related Posts