বান্দরবানে একই পরিবারের ৫ জনকে কুপিয়ে হত্যা: ২২ জন কারাগারে

বান্দরবানের রুমা উপজেলার আবু পাড়ায় একই পরিবারের পাঁচজনকে কুপিয়ে হত্যা মামলায় ২২ জনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে আসামিদের আদালতে হাজির করা হলে জবানবন্দি শেষে সন্ধ্যায় কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বান্দরবান জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. নূরুল হক। কারাগারে যাওয়া আসামিরা হলেন- রুইতু ম্রো (৫০), ইংচং ম্রো (২৬), মাংজং ম্রো (২৮), ক্রংপং ম্রো (৩৮), পাসিং ম্রো (২২), ক্রংতন ম্রো (৩৫), ক্রাতপং সিংচাং ম্রো (৩৯), রিংয়ং ম্রো (৩৫), ইজাং ম্রো (২৭), থনলক ম্রো (৩৫), পালে ম্রো (২৫), ক্লাংসাই ম্রো (২০), মেনপ্রে ম্রো (২০), খংপ্রে ম্রো, কাইং প্রে ম্রো (১৮), মেনরাও ম্রো (২২), মেনয়া ম্রো (২৬), খনতন ম্রো (৪১), মেনয়ং ম্রো (২৪), চাংরাও ম্রো (৩১), থংওয়াই ম্রো (২৪) ও মেনপং ম্রো (৩৭)।

এর আগে শুক্রবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) ভোরে রুমা উপজেলার গ্যালেংগা ইউনিয়নের আবু পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- আবু পাড়ার প্রধান লংরুই ম্রো (৬৫), তার ছেলে রুংথুই ম্রো (৪২), লেংরুং ম্রো (৩৮), মেনওয়াই ম্রো (২৯) ও রিংরাও ম্রো (২৬)। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, জুম চাষের জন্য জঙ্গল কাটা নিয়ে পাড়াবাসীদের সঙ্গে ওই পরিবারের বিরোধ চলে আসছিল। শুক্রবার ভোরে দুই গ্রুপের বাগবিতণ্ডার জেরে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে পাড়া প্রধান লংরুই ম্রোসহ তার পরিবারের ওপর হামলা চালায় পাড়াবাসীরা। এতে ঘটনাস্থলে লংরুই ম্রো ও তার বড় ছেলে রুংথুই ম্রো মারা যান। বাকিদের হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান।

রুমা উপজেলার গ্যালিংগা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মেনরত ম্রো বলেন, পাড়া প্রধান ও তার চার ছেলেকে কুপিয়েছে পাড়াবাসীরা। এতে পাঁচজনই মারা যান। এ বিষয়ে রুমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল কাশেম বলেন, রুমায় বাবা-ছেলেসহ পাঁচ জনকে কুপিয়ে হত্যা মামলায় গ্রেফতার ২২ আসামিকেআদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আরও ২০ থেকে ২৫ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, তদন্ত চলমান আছে। আরও তদন্ত করে প্রকৃত দোষীদের শনাক্ত করা সম্ভব হবে।

Related Posts