আ. লীগ সরকার সংবিধান মানে না : জয়নুল আবদিন

আ. লীগ সরকার সংবিধান মানে না : জয়নুল আবদিন

তিনশ আসনের জাতীয় সংসদে ছয়শ সংসদ সদস্য থাকার বৈধ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও বিরোধীদলীয় সাবেক চিফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক। তিনি বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার দেশের সংবিধান মানে না।

বুধবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে তিনি এই প্রশ্ন তোলেন।

জয়নুল আবদীন ফারুক বলেন, বাংলাদেশে এখন এমপি ছয়শ জন। ২৯ তারিখ পর্যন্ত এই সংসদ (একাদশ), সেই সংসদের সদস্য এখনো বহাল আছেন। কি করে সম্ভব? সংবিধানের কোন আইনে লেখা আছে এরা শপথ করতে পারবেন? আমি বলতে চাই, আপনারা (সরকার) সংবিধান মানেন না, সংবিধানের কথা বলে আর বাংলাদেশের মানুষকে অপমান কইরেন না। দয়া করে সংবিধান মতো চলেন, পদত্যাগ করেন, গণতন্ত্র ফিরিয়ে দেন।

নবম সংসদের বিরোধী দলের প্রধান হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক বলেন, ৭ জানুয়ারি যে নির্বাচন হয়ে গেলো এটা কোনো নির্বাচন হয়নি, ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে যায়নি। এটা দেশ-বিদেশের গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রচার হয়েছে। এটা লজ্জ্বার।

তিনি বলেন, মামলা-হামলা-জেল-জুলুম করছেন। কোনো লাভ হবে না। এই সরকার যত কলাকৌশল করুক না কেনো তারা এরকম ভুয়া পাতানো নির্বাচন করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারবে না। জনগণ অবশ্যই তাদেরকে আন্দোলনের মাধ্যমে বিদায় করবেই।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গণতন্ত্র ফোরামের উদ্যোগে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীসহ কারাবন্দি নেতা-কর্মীদের মুক্তির দাবিতে এই মানবন্ধন হয়।

এ সময় গণতন্ত্র ফোরামের সভাপতি ভিপি ইব্রাহিমের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির শিশু বিষয়ক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী, তথ্য ও গবেষণাসহ সম্পাদক কাদের গণি চৌধুরী, কৃষক দলের ওবায়দুর রহমান টিপু, সাহাদাত হোসেন বিপ্লব, তাঁতী দলের কাজী মনিরুজ্জামান, মতস্যজীবী দলের সেলিম মিয়া, জাসাসের আরিফুর রহমান প্রমুখ।