আবরার হত্যা: দ্রুত বিচার শেষ করার দাবি শিক্ষার্থীদের

আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় দ্রুত বিচার শেষ করার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থীরা। আবরারের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশ থেকে এ দাবি জানানো হয়। বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) বেলা ১১টায় বুয়েট অডিটোরিয়ামের সামনে এ সমাবেশ হয়। সমাবেশে কনসার্টের শুরুতে আবরার ফাহাদের স্মৃতিচারণ করেন বুয়েটের মেকানিকাল ১৭ ব্যাচের শিক্ষার্থী রাফিয়া রিজওয়ানা।

তিনি বলেন, অন্যায়ের প্রতিবাদী আবরার ফাহাদের একটি ফেসবুক স্ট্যাটাসের কারণে তাকে রুমে ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের নামে সারারাত ধরে নির্যাতন করেন ছাত্রলীগের কতিপয় বিকৃত মস্তিষ্ক শিক্ষার্থী। বিভিন্ন কারণে তার মামলা দীর্ঘসূত্রিতা পেয়েছে। মামলা আবার পুনরায় শুরু হলেও এখনো তিনজন আসামি পলাতক। আমরা অনতিবিলম্বে তাদের গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানাই। এই শিক্ষার্থী আরও বলেন, দুই বছর অতিক্রান্ত হয়ে গেছে। বিচারের অপেক্ষায় আবরার ফাহাদের মা এখনো চেয়ে আছেন। আমরাও আছি তার হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার কার্যকর করে নিরাপদ ক্যাম্পাস হিসেবে বুয়েটকে দেখবো বলে। সাংস্কৃতিক সমাবেশের অংশ হিসেবে প্রতিবাদী কবিতা, গান-নাটক ও বারোয়ারী বিতর্ক পরিবেশন করেন শিক্ষার্থীরা। এসময় তারা কালোব্যাজ পরিধান করে আবরারের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। ২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর আবরার ফাহাদকে রাতে ডেকে নেন বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। এরপর রাত ৩টার দিকে শেরেবাংলা হলের নিচতলা ও দোতলার সিঁড়ির করিডোর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত আবরার বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। শেরেবাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন।