মেট্রোরেল চলবে সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত

মেট্রোরেল চলবে সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত

অফিসগামীসহ যাত্রীদের সুবিধার কথা বিবেচনায় নিয়ে আগামী ৩১ মে থেকে মেট্রোরেল চলবে সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। এখন মেট্রোরেলের সাপ্তাহিক ছুটি মঙ্গলবার হলেও নতুন সময়সূচিতে এ রেল বন্ধ থাকবে শুক্রবার।

বৃহস্পতিবার (১৮ মে) রাজধানীর প্রবাসী কল্যাণ ভবনে ডিএমটিসিএলের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এম এ এন সিদ্দিক। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ৩১ মের পর থেকে প্রতি শুক্রবার মেট্রোরেল বন্ধ থাকবে। আবার আগামী ঈদুল আজহার দিনও এ ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকবে।

ডিএমটিসিএল এমডি বলেন, নতুন সময় অনুযায়ী সকাল ৮টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত ‘পিক আওয়ার’ হিসেবে বিবেচনা করে প্রতি ১০ মিনিট পর পর ছাড়বে মেট্রোরেল। বেলা ১১টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত ১৫ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে মেট্রোর জন্য। পরবর্তী ৩ ঘণ্টা অর্থাৎ বিকেল ৩টা ১ মিনিট থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত আবারও ১০ মিনিট পর পর স্টেশন ছাড়বে মেট্রোরেল। সন্ধ্যা ৬টা ১ মিনিট থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ‘নন পিক আওয়ার’ ধরে ১৫ মিনিট পর পর স্টেশন ছাড়বে মেট্রোরেল।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, আগামী জুলাই মাসে আগারগাঁও থেকে মতিঝিল অংশে পরীক্ষামূলকভাবে মেট্রোরেল চালানো হবে। ডিসেম্বর নাগাদ পুরো পথে যাত্রী নিয়ে এ উড়াল ট্রেনের চলাচল শুরু হতে পারে। তখন হয়তো দিনে ১৬ ঘণ্টা পর্যন্ত মেট্রোরেল চলাচল করবে। পর্যায়ক্রমে তা ২৪ ঘণ্টায় সম্প্রসারণ করা হবে।

গত বছরের ২৮ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মেট্রোরেলের শুভ উদ্বোধন করেন। ওইদিন তিনি সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যক্তিবর্গসহ নানা শ্রেণিপেশার দুই শতাধিক যাত্রী নিয়ে উত্তরা উত্তর স্টেশন থেকে আগারগাঁও স্টেশন পর্যন্ত মেট্রোরেলে ভ্রমণ করেন।

এর একদিন পর ২৯ ডিসেম্বর সাধারণ যাত্রী পরিবহনের মধ্য দিয়ে বাণিজ্যিকভাবে চালু হয় মেট্রোরেল। শুরুতে প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত চার ঘণ্টা বিরতিহীনভাবে চলাচল করে এ রেল।

এরপর যাত্রী চাহিদার কথা বিবেচনা করে এপ্রিলের শুরুতে দুই ঘণ্টা সময় বাড়ানো হয়। গত ৫ এপ্রিল থেকে সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ছয় ঘণ্টা চলাচল শুরু করে মেট্রোরেল। ডিএমটিসিএল কর্তৃপক্ষ তখনই জানিয়েছিল, জুলাই মাস থেকে পুরোদমে মেট্রোরেল চলাচল শুরু হবে। তখন প্রতিদিন ভোর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে চলবে এ উড়াল ট্রেন। এরই ধারাবাহিকতায় আগামী ৩১ মে থেকে প্রতিদিন ১২ ঘণ্টায় সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে মেট্রোরেল।

এদিকে উদ্বোধনের দিনই চালু হয় মেট্রোরেলের উত্তরা উত্তর ও আগারগাঁও স্টেশন দুটি। এরপর একে একে ৯টি স্টেশনই যাত্রীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। এর মধ্যে গত ২৫ জানুয়ারি পল্লবী স্টেশন, ১৮ ফেব্রুয়ারি উত্তরা সেন্টার স্টেশন, ১ মার্চ মিরপুর-১০ নম্বর স্টেশন, ১৫ মার্চ কাজীপাড়া ও মিরপুর ১১ নম্বর স্টেশন এবং গত ৩১ মার্চ মেট্রোরেলের শেওড়াপাড়া ও উত্তরা দক্ষিণ স্টেশন দুটি খুলে দেওয়া হয়। বর্তমানে প্রতিদিন উত্তরা উত্তর স্টেশন থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রোরেল চলাচল করছে।

২০১৭ সালের ৩ আগস্ট মেট্রোরেল প্রকল্পের পাইলিং কাজের উদ্বোধন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। রাজধানীর আগারগাঁওয়ে পরিসংখ্যান ভবনের সামনের সড়কে এর উদ্বোধন করা হয়।

এমআরটি লাইন-৬ এর উত্তরা উত্তর স্টেশন থেকে কমলাপুর পর্যন্ত দৈর্ঘ্য প্রায় ২২ কিলোমিটার (২১ দশমিক ২৬ কিলোমিটার)। এর মোট ব্যয় ৩৩ হাজার ৪৭২ কোটি টাকা। এরমধ্যে জাপানের আন্তর্জাতিক সহযোগিতা সংস্থা-জাইকার ঋণ ১৯ হাজার ৭১৮ কোটি ৭০ লাখ টাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.